চালককে খুন করে অটোরিকশা ছিনতাই, গ্রেপ্তার ৬

পুলিশ বলছে, চক্রটি অটোরিকশা ভাড়া করে নির্জন স্থানে নিয়ে চালককে গলা কেটে হত্যার পর টাকা, মোবাইল ও অটোরিকশা নিয়ে চলে যেত।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Jan 2023, 11:44 AM
Updated : 14 Jan 2023, 11:44 AM

যাত্রী বেশে অটোরিকশায় উঠে নির্জন জায়গায় নিয়ে চালককে হত্যার পর টাকা, মোবাইল ও অটোরিকশা ছিনতাইয়ে জড়িত একটি চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার পুলিশ।

শুক্র ও শনিবার দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তারের কথা জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশিদ।

গ্রেপ্তাররা হলেন- খালেদ খান শুভ (২০), মো. টিপু (৩১), হাসানুল ইসলাম ওরফে হাসান (২০), জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০), আব্দুল মজিদ (২৯) এবং মো. সুমন (৩৫)।

তাদের বিষয়ে শনিবার ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে হারুন অর রশিদ জানান, চক্রটি মূলত অটোরিকশা ভাড়া করে চালকদের নিরিবিলি স্থানে নিয়ে যেত। এরপর চালককে গলা কেটে হত্যা করে টাকা, মোবাইল এবং অটোরিকশা নিয়ে চলে যেত।

“আমরা একটি ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে খুব কাছাকাছি সময়ে একই ধরনের আরেকটি ক্লু-লেস হত্যার ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে পেরেছি। দুইটি ঘটনাই একই চক্র করেছে।”

চক্রটি আরো কোনো হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত কিনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

অটোরিকশা চালক মোস্তফা খুন

গতবছরের ৭ ডিসেম্বর রাতে প্রতিদিনের মত নিজের অটোরিকশা নিয়ে ঢাকার দক্ষিণখানের বাসা থেকে বের হন মো. মোস্তফা। ৩৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি দুই দিনেও বাসায় না ফেরায় বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে তার স্বজনরা। এরপর দক্ষিণখান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তার মা শামছুন্নাহার।

মোস্তফার বৃদ্ধ বাবা গিয়াস উদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, তারা বিভিন্ন জায়গা খোঁজ নিয়ে না পেয়ে মাইকিংও করেছেন। এলাকায় ছেলের ছবি দিয়ে পোস্টার ছাপিয়ে বিভিন্ন জায়গায় লাগিয়েছেন।

“খোঁজাখুজির মধ্যে ১৭ ডিসেম্বর দক্ষিণখান থানাধীন আসিয়ান সিটির ২৩ নম্বর রোডের পশ্চিম দিকে ফাঁকা প্লটে একটি লাশ পাওয়া  যায়। পরে সেখানে ছুটে যাই। গলাকাটা লাশটি বিকৃত হয়ে যাওয়ায় পরনের পোশাক দেখে তাকে শনাক্ত করি।”

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ওই ঘটনায় একটি মামলা হলে গোয়েন্দা পুলিশ তদন্তে নেমে মৌলভীবাজার থেকে খালেদ খান শুভকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার কাছ থেকে অটো চালক মোস্তফার মোবাইল উদ্ধার করা হয়।তার দেওয়া তথ্যেই অন্যদের গ্রেপ্তার করে এবং  মোস্তফার অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়। মোস্তফাকে হত্যার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেন খালেদ।

অটোরিকশা চালক জিহাদ হত্যা

পনের বছর বয়সী জিহাদ ঢাকার উত্তরার দক্ষিণখানের নদ্দাপাড়ার রিকশা চালক হেলাল উদ্দিনের একমাত্র ছেলে। গত ২৫ ডিসেম্বর সকালে সে অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে নিখোঁজ হয়।

জিহাদের বাবা হেলাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ছেলেকে না পেয়ে তিনি বিভিন্ন জায়গায় মাইকিং করে খোঁজাখুজি করেন। নিখোঁজ থাকার পঞ্চমদিনে ২৯ ডিসেম্বর তিনি খোঁজ পান গাজীপুরের কালীগঞ্জে একটি পুলিশ ফাঁড়িতে অজ্ঞাতনামা এক কিশোরের লাশ রয়েছে।

 “খবর পেয়ে ছুটে যাই। দেখি সেটি আমার ছেলে জিহাদের লাশ।”

গলাকাটা লাশটি পুলিশ একটি পরিত্যক্ত ড্রেন থেকে উদ্ধার করেছে বলে তাদর জানানো হয়। তবে জিহাদের মোবাইল, অটোরিকশাটি পাওয়া যায়নি বলে জানান হেলাল।

সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার হারুন বলেন, মোস্তাফা হত্যাকাণ্ডে যে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা একই কায়দায় জিহাদের অটোরিকশা ভাড়া করে এবং নিরিবিলি জায়গায় সবকিছু ছিনিয়ে নিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক