অর্থ আত্মসাতের মামলায় সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তাসহ চারজন দণ্ডিত

১৯ লাখ ১৯ হাজার ২০৪ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১৮ সালের ২৩ জুন মতিঝিল থানায় এই মামলা হয়।

আদালত প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Oct 2023, 10:20 AM
Updated : 17 Oct 2023, 10:20 AM

প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের মামলায় সোনালী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার মো. নাইমুল ইসলামসহ চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন- সোনালী ব্যাংকের হিসাবধারী রফিকুল ইসলাম, মো. আল আমিন ও মোছা. লিপি বেগম।

মঙ্গলবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক মো. ইকবাল হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে নাইমুল ইসলামকে দুটি পৃথক ধারায় ১৭ বছরের কারাদণ্ড পাশাপাশি ৮১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছে আদালত। অপর তিন আসামিকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ৮১ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন বিচারক।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী সোহানুর রহমান সোহান  এ তথ্য জানান।

এদিন কারাগারে আটক আসামি নাইমুল ও রফিকুলকে আদালতে হাজির করা হয়। জামিনে থাকা আল আমিনও উপস্থিত হন। রায়ের পর সাজা পরোয়ানা দিয়ে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়।

আরেক আসামি লিপি উপস্থিত না থাকায় আদালত তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানাসহ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৭ সালের ২৬ ডিসেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ২১ জুন পর্যন্ত আসামিরা বিভিন্ন তারিখে এক কোটি ১৯ লাখ ১৯ হাজার ২০৪ টাকা নির্ধারিত হিসাবে জমা না করে চারটি হিসাবে পরস্পর যোগসাজশে আত্মসাৎ করেন।

এ ঘটনায় ২০১৮ সালের ২৩ জুন সোনালি ব্যাংকের ওয়াপদা ভবন কর্পোরেট শাখার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে মতিঝিল থানায় মামলা দায়ের করেন।

তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবুল কালাম আজাদ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পরবর্তীতে একই বছরের ৮ মার্চ পলাতক লিপি বেগমের অনুপস্থিতিতে আসামিদের বিচার শুরুর আদেশ দেয় আদালত। মামলার বিচারের সময় আদালতে সাক্ষ্য দেন ১৭ জন।