ইন্দিরা রোডে গৃহকর্মীর মৃত্যু, ভবনে হামলা

দশতলা ভবনের সাততলায় একজন চিকিৎসকের বাসায় কাজ করতেন ওই কিশোরী।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2022, 06:46 PM
Updated : 17 Nov 2022, 06:46 PM

ঢাকার ইন্দিরা রোডে ভবনের উপর থেকে পড়ে এক গৃহপরিচারিকার মৃত্যুর পর দশতলা ওই ভবনে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

ওই গৃহকর্মী যে বাসায় কাজ করতেন সেটির গৃহকর্তা এক চিকিৎসকে আটক করে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার আজিমুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার সকালে মাহমুদা (১৪) নামে ওই গৃহকর্মীর নিথর দেহ ইন্দিরা রোডের বাসার সামনে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ওই কিশোরীকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে জানায়।

উপ কমিশনার আজিমুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এ ঘটনার তদন্ত চলছে। তাকে ‘ফেলে হত্যা’ করা হয়েছে না কি সে নিজে পড়ে ‘আত্মহত্যা’ করেছে তা যাচাই করা হচ্ছে।

দশতলা ওই ভবনের সাততলার বাসিন্দা চিকিৎসক মফিজুর রহমানের বাসায় কাজ করতেন মাহমুদা।

এদিকে ওই গৃহপরিচারিকাকে ফেলে দিয়ে হত্যা করা হয়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়লে সন্ধ্যার পরপর ওই ভবনের সামনে প্রচুর মানুষ ভিড় জমায়।

এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ লোকজন ইটপটকেল ছুঁড়তে শুরু করে। এতে বিভিন্ন তলার জানালার কাঁচ ভেঙে যায়। তারা ওই গৃহকর্মী যে বাসায় থাকতেন সেখানকার বাসিন্দাদের লোকজনকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান বলে পুলিশ জানায়।

উপ কমিশনার জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে বাসায় গৃহকর্তা চিকিৎসক ছাড়া অন্য কেউ না থাকায় তাকে থানায় এনে ঘটনার বিষয়ে জিজ্ঞাসাদ করা হচ্ছে।

গৃহকর্তা চিকিৎসক পুলিশকে জানিয়েছে , ওই গৃহকর্মীর মৃত্যুর বিষয়ে তিনি অবগত নন। প্রতিদিনের মতই তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। সকালে পরে ঘটনা জেনেছেন।

নিহত গৃহকর্মীর গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহে। তার বাড়ির লোকজন খবর পেয়ে এসেছেন। তবে এখন পর্যন্ত অভিযোগ নেই বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা আজিমুল।

”এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। এর ভিত্তিতেই তদন্ত হবে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন আসার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে,” জানান তিনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক