বাড্ডায় বাসা থেকে বাবা-ছেলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

পৃথক কক্ষ থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করার তথ্য দিয়েছে পুলিশ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Feb 2024, 07:33 PM
Updated : 28 Feb 2024, 07:33 PM

রাজধানীর বাড্ডার বেরাইদের একটি ভাড়া বাসা থেকে বাবা ও ছেলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বেরাইদের জেলেপাড়া এলাকার মুবাক্কারের বাড়ির নিচতলার পৃথক কক্ষ থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করার তথ্য দেন বাড্ডা থানার ওসি ইয়াসিন গাজী।

নিহত গিয়াস উদ্দিন (৭০) একজন অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক এবং তার ছেলে রাকিব হোসেন (৩০) বৈদ্যুতিক মিস্ত্রি। তাদের গ্রামের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে।

প্রতিবেশীদের বরাতে ওসি বলেন, ওই ভবনের নিচতলায় তারা ১২ বছর ধরে ভাড়া থাকতেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, রাকিবের সন্ধ্যায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অনুষ্ঠানে না পেয়ে তার এক বন্ধু হারুন ফোনে যোগাযোগ করে। ফোনে না পেয়ে তার খোঁজে ওই বাসায় যায়।

“পরে বাসার দরজা বন্ধ পেয়ে অনেক ডাকাডাকি করে ভেতর থেকে কোন সাড়া না পেয়ে কয়েকজন মিলে দরজা ভেঙ্গে বাবা এবং পুত্রকে ঝুলন্ত অবস্থায় পায়।”

ওসি ইয়াসিন গাজী বলেন, “দুইজনকে দুই রুমে গলায় ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত অবস্থায় পায় হারুণ এবং তার সাথের লোকজন। তারা প্রথমে গিয়াস উদ্দিনকে নামায়। আমরা ধারণা করছি গিয়াস উদ্দিন আগে গলায় ফাঁস দিয়েছে। পরে তা দেখে ছেলে সহ্য করতে না পেরে পাশের রুমে গলায় ফাঁস দেয়।”

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে ওসি জানতে পেরেছেন, প্রায় দুই বছর আগে গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী মারা গেছেন। বাবা-ছেলে মিলে ওই বাসায় ১২ বছর ধরে থাকতেন। ছোটখাট বিষয় নিয়ে পিতা- পুত্রের মধ্যে প্রায়শই ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকত।

এরই ধরাবাহিকতায় রাগ এবং ক্ষোভে তারা আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে অনেকের ধারণা।

লাশ দুটি উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনে পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।  

রাত ১টা পর্যন্ত তাদের স্বজনদের পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।