ছবি পাঠাচ্ছে গোয়েন্দা উপগ্রহ, দাবি উত্তর কোরিয়ার

নিজেদের পরমাণু শক্তিধর দেশ দাবি করা উত্তর কোরিয়া গত মঙ্গলবার মহাকাশে সফলভাবে একটি গোয়েন্দা উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করেছে।

রয়টার্স
Published : 25 Nov 2023, 01:15 PM
Updated : 25 Nov 2023, 01:15 PM

গোয়েন্দা উপগ্রহ উৎক্ষেপণের তিনদিন পর সেটির ছবি পাঠানোর খবর দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। ছবিগুলো দেশটির নেতা কিম জং উন পর্যবেক্ষণ করছেন।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রায়াত্ত সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ শনিবার এখবর প্রকাশ করে। খবরে বলা হয়, দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউল এবং দেশটির যেসব নগরীতে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাঘাঁটি রয়েছে সেগুলো সহ ‘বড় বড় লক্ষ্যবস্তুর’ ছবি তুলতে শুরু করেছে তাদের গোয়েন্দা উপগ্রহ।

নিজেদের পরমাণু শক্তিধর দেশ দাবি করা উত্তর কোরিয়া গত মঙ্গলবার মহাকাশে সফলভাবে একটি গোয়েন্দা উপগ্রহ উৎক্ষেপণের দাবি করে। যার কারণে নিজেদের নিরাপত্তা সংকটে পড়েছে অভিযোগ তুলে পরদিন দক্ষিণ কোরিয়া দুই দেশের মধ্যে ২০১৮ সালে হওয়া কমপ্রিহেনসিভ মিলিটারি এগ্রিমেন্টের (সিএমএ) একটি অংশ স্থগিত করেছে।

নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হলেও দক্ষিণ কোরিয়ার কয়েকজন কর্মকর্তা উত্তর কোরিয়ার গোয়েন্দা উপগ্রহ বাস্তবে কতটা কার্যক্ষম হবে তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন।

এর মধ্যেই কেসিএনএ সেটির ছবি পাঠানোর খবর প্রকাশ করলো। খবরে বলা হয়, কিম গোয়েন্দা উপগ্রহের পাঠানো সিউল, মোকপো, কুনসান, পিয়ংটেক এবং ওসান নগরীর ছবি পরীক্ষা করে দেখেছেন। উপগ্রহটি শুক্রবার সকালে কোরীয় উপদ্বীপ অতিক্রম করার সময় ওই ছবিগুলো তোলে বলেও জানায় কেসিএনএ।

পিয়ংইয়ংয়ের ন্যাশনাল অ্যারোস্পেস টেকনোলজি অ্যাডমিনিসট্রেশন (এনএটিএ) ওই উপগ্রহটি নিয়ন্ত্রণ করছে। কিম শুক্রবার সেখানে গিয়ে ওইসব ছবি নিজে পরীক্ষা করে দেখেন। পরদিন শনিবারও তিনি সেখানে যান এবং আরো কিছু ছবি পরীক্ষা করেন।

কেসিএনএ-র খবরে বলা হয়, শনিবার সকালে কিম ভিন্ন ভিন্ন লক্ষ্যের আরো বেশকিছু ছবি পরীক্ষা করেন। সেগুলোর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার জিনহায়ে, বুসান, উলসান, পোহাং, দেগু এবং গ্যাংনেউং এর ছবি ছিল।

“সেগুর মধ্যে একটি ছবিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহী রণতরী কার্ল ভিনসন কে দেখা গেছে। যেটি গত মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার বুসানের একটি বন্দরে হাজির হয়েছে।”

শনিবার খুব ভোরে হাওয়াই অঞ্চল অতিক্রম করার সময় উপগ্রহটি যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর দপ্তর পার্ল হারবর এবং হিকাম বিমানঘাঁটির ছবিও তুলেছে বলে কেসিএনএ-র খবরে দাবি করা হয়েছে। যে ছবিগুলোও পরীক্ষা করেছেন কিম।

দক্ষিণ কোরিয়া কর্মকর্তা অবশ্য উত্তর কোরিয়ার এ দাবি নিয়ে এখনো সন্দেহ প্রকাশ করে যাচ্ছেন।

Also Read: গোয়েন্দা উপগ্রহ উৎক্ষেপণ: উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে দক্ষিণের সামরিক চুক্তিতে ফাটল

Also Read: দ. কোরিয়া সীমান্তে শক্তি বাড়ানোর হুঁশিয়ারি উ. কোরিয়ার