মিয়ানমারের সশস্ত্র দলগুলোকে ‘রাজনৈতিকভাবে’ সংকট সমাধানের পরামর্শ জান্তা প্রধানের

গত অক্টোবরের শেষের দিকে মিয়ানমারের তিনটি সশস্ত্র গোষ্ঠী উত্তরাঞ্চলীয় শান প্রদেশে যৌথভাবে হামলা শুরু করে।

রয়টার্স
Published : 5 Dec 2023, 02:47 PM
Updated : 5 Dec 2023, 02:47 PM

মিয়ানমারের জান্তা শাসকদের বিরুদ্ধে লড়াইরত জাতিগত সশস্ত্র দলগুলোকে তাদের নিজেদের সংকট সমাধানের ‘রাজনৈতিক’ উপায় খুঁজে বের করতে বলেছেন জান্তা প্রধান মিন অং হ্লাইং।

মঙ্গলবার দেশটির রাষ্ট্রায়াত্ত একটি সংবাদ মাধ্যমে এ খবর প্রকাশ পায়।

জান্তা প্রধানের বরাত দিয়ে দ্য গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার পত্রিকায় বলা হয়, “(তিনি) সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, যদি সশস্ত্র সংগঠনগুলো নির্বোধের মত কর্মকাণ্ড চালিয়ে যেতে থাকে তকে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের বাসিন্দারা তার খারাপ প্রভাবের শিকার হবে। তাই তাদের জনগণের জীবন বিবেচনায় নেওয়া প্রয়োজন। সেই সংগঠনগুলির উচিত রাজনৈতিকভাবে নিজেদের সমস্যার সমাধান করা।"

মিয়ানমারে এক ডজনের বেশি সংখ্যালঘু সশস্ত্র জাতিগোষ্ঠী রয়েছে। এসব গোষ্ঠীর অনেকগুলো সীমান্ত অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করছে। ১৯৪৮ সালে মিয়ানমার স্বাধীন হওয়ার পর সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করছে তারা।

গত অক্টোবরের শেষের দিকে মিয়ানমারের তিনটি সশস্ত্র গোষ্ঠী উত্তরাঞ্চলীয় শান প্রদেশে যৌথভাবে হামলা শুরু করে। ওই প্রদেশের চীন সীমান্তবর্তী বেশ কয়টি শহর এখন বিদ্রোহীদের দখলে। সেখানকার ব্যবসা-বাণিজ্য তারাই নিয়ন্ত্রণ করে।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে অং সান সু চির দলকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখলের পর জান্তা শাসকদের এবারই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছে।

জাতিসংঘের মাঠ পর্যায়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, অক্টোবরে বিদ্রোহীরা হামলা শুরুর পর শিশুসহ ২৫০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন।

জাতিসংঘ জানায়, দেশজুড়ে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।