প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় ২০ জন দোষী সাব্যস্ত

প্রায় সাত বছর আগে ২০১৫ সালে প্যারিসে পরিকল্পিতভাবে ভয়াবহ বন্দুক ও বোমা হামলা চালিয়ে ১৩০ জনকে হত্যার দায়ে ২০ ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করেছে ফ্রান্সের একটি আদালত।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 June 2022, 04:20 AM
Updated : 30 June 2022, 05:27 AM

সন্ত্রাসবাদ ও খুনের অভিযোগে প্রধান সন্দেহভাজন সালাহ আবদেসালাম দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন বলে বুধবার বিচারক জ্যঁ লুই পেরি জানিয়েছেন।

যে দল হামলাটি চালিয়েছিল তাদের একমাত্র জীবিত সদস্য বেলজিয়ামে জন্ম নেওয়া ফ্রান্সের নাগরিক আবদেসালামকে (৩২) আশু মুক্তির কোনো সম্ভাবনা ছাড়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে; এর আগে ফ্রান্সে মাত্র চারবার এ ধরনের দণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

২০১৫ সালের ১৩ নভেম্বর প্যারিসের বাতাক্ল মিউজিক হল, ছয়টি বার ও রেস্তোরাঁ এবং স্তাদ দে ফঁস স্টেডিয়ামের পরিসীমা দীর্ঘ সময় ধরে চলা হামলার লক্ষ্যস্থল ছিল। ভয়াবহ সন্ত্রাসী এ হামলা ফ্রান্সকে কাঁপিয়ে দিয়েছিল এবং দেশটির জনমানসে একটি গভীর ক্ষত রেখে যায়।

বিচারের শুরুতে আদালতে আবদেসালাম বলেছিলেন, তিনি জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) একজন ‘সৈন্য’; আইএস এ হামলার দায় স্বীকার করেছিল।

পরে সে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে এবং বিচার চলাকালে দাবি করে, একেবারে শেষ মুহূর্তে নিজের বিস্ফোরক ভেস্টে বিস্ফোরণ না ঘটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি; কিন্তু তদন্ত ও শুনানির ভিত্তিতে রায়ে অন্য কথা বলেছে আদালত। 

“আদালতের বিবেচনায় বিস্ফোরক ভেস্টটি কাজ করেনি। একটি সন্ত্রাসবাদী নেটওয়ার্কের সদস্য হওয়ায় আবদেসালাম দোষী,” বলেছেন পেরি।

তিনি আরও বলেন, “সব আসামী সবগুলো অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে।”

তবে গুরুতর অভিযোগ নেই এমন একজন শুধু সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এটি অন্য কোনো বিচারের মতো ছিল না, শুধুমাত্র এর ১০ মাসের ব্যতিক্রমী দৈর্ঘ্যের জন্যই নয়, এই বিচারে ক্ষতিগ্রস্তদের সাক্ষ্যে তাদের কষ্ট ও তা কাটিয়ে উঠতে তাদের সংগ্রামের চিত্র তুলে ধরার জন্য যে সময় দেওয়া হয়েছিল তার জন্যও অনন্য ছিল। তাতে নিহতদের পরিবারগুলো তাদের কঠিন সময়ের ছবিগুলো তুলে ধরতে পেরেছে।

আরও ১৩ জন যাদের মধ্যে ১০ জন হেফাজতে আছেন, মাসের পর মাস ধরে চলা শুনানিতে আদালত কক্ষে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তাদের কয়েকজন হামলায় তাদের ভূমিকার দায় স্বীকার করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চান। অন্যরা দীর্ঘ এ সময়ে কোনো কথা বলেননি।

হামলাকারীদের অস্ত্র অথবা গাড়ি সরবরাহ করা থেকে শুরু করে হামলায় অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা করার মতো অপরাধের জন্য আদালত তাদের দোষী সাব্যস্ত করেছে। বিচার চলাকালে আরও ছয় জন অনুপস্থিত ছিলেন, তারাও দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন; তবে ধারণা করা হয়, তারা বেঁচে নেই।

বাতাক্ল মিউজিক হলের হামলা থেকে বেঁচে ফেরা আকচুঁও দ্যুঁনোভো রায়ের আগে রয়টার্সকে বলেছেন, “বিচার ভুক্তভোগীদের প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে গেছে। কারণ সন্ত্রাসীরা কথা বলেছে, সন্ত্রাসীরা আমাদের সাক্ষ্যের জবাব দিয়েছে, এটা খুব অপ্রত্যাশিত ছিল, সন্ত্রাসীদের বিচারে এটা কখনোই ঘটে না।

প্যারিস হামলার ক্ষতিগ্রস্তদের সংঘ লাইফ ফর প্যারিসের প্রেসিডেন্ট দ্যুঁনোভো বলেন, “আমি মনে করি আমরা যা অর্জন করেছি তার জন্য আমরা গর্বিত হতে পারি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক