গাজায় ত্রাণকর্মীদের উপর ইসরায়েলের হামলায় ‘ক্ষুব্ধ’ বাইডেন

আন্তর্জাতিক মানবিক ত্রাণ সংস্থাগুলোর কর্মীদের ‘আতঙ্কিত করার উদ্দেশ্যেই’ এ হামলা চালানো হয়েছে বলে মনে করে হামাস।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 April 2024, 09:55 AM
Updated : 3 April 2024, 09:55 AM

গাজায় ইসরায়েলের হামলায় সাত ত্রাণকর্মী নিহতের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, এ খবর তার ‘হৃদয় ভেঙ্গে দিয়েছে এবং তিনি অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হয়েছেন’।

ত্রাণকর্মীদের সুরক্ষায় ইসরায়েল যথেষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সোমবার গাজার মধ্যাঞ্চলীয় দাইর আল বালাহ এলাকায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় দাতব্য সংস্থা ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেন (ডব্লিউসিকে) এর সাত কর্মী নিহত হন।

ওই কর্মীদের মধ্যে পোল্যান্ডের একজন, যুক্তরাজ্যর তিনজনসহ অস্ট্রেলিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র-কানাডার এক দ্বৈত নাগরিক ছিলেন। বাকি একজন ফিলিস্তিনি।

ডব্লিউসিকে বলছে, দাইর আল বালার একটি গুদাম থেকে চলে যাওয়ার সময় ত্রাণবাহী গাড়িবহরে হামলায় ওই কর্মীরা নিহত হয়েছে। তারা সমুদ্রপথে গাজায় নেওয়া ১০০ টনের বেশি খাবার ওই গুদামে রেখে আসতে গিয়েছিল।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু স্বীকার করেছেন যে, ইসরায়েলি বাহিনী নিরীহ মানুষের ওপর হামলা করেছে। মঙ্গলবার এক ভিডিও বার্তায় নেতানিয়াহু বলেন অনিচ্ছাকৃতভাবে এমন ঘটনা ঘটে গেছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট ইসাক হারজোগ ত্রাণকর্মীদের মৃত্যুর ঘটনা ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

ইসরায়েল এ ঘটনায় স্বাধীন তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

বাইডেন ইসরায়েলকে দ্রুত এই তদন্ত শেষ করতে বলেছেন। সেইসঙ্গে তিনি এও বলেন, “এটিকে অবশ্যই জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে এবং তদন্তের ফলাফল প্রকাশ করতে হবে।”

গাজায় ত্রাণ বিতরণ ‘খুবই কঠিন’ হয়ে পড়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, “সাধারণ মানুষের প্রাণ বাঁচাতে অতি জরুরি যে সহায়তা প্রয়োজন তা বিতরণ করতে যাওয়া ত্রাণকর্মীদের সুরক্ষায় ইসরায়েল যথেষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।”

Also Read: গাজায় ত্রাণকর্মী নিহত: ইসরায়েলের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে পোল্যান্ড-যুক্তরাজ্য

Also Read: গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় বিদেশি ত্রাণকর্মী নিহত

গাজার বেসামরিক ফিলিস্তিনিদের রক্ষার্থেও ইসরায়েল পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ করেন বাইডেন। বলেন, “বেসামরিক হতাহতের ঘটনা এড়াতে যুক্তরাষ্ট্র বার বার ইসরায়েলকে বলেছে হামাসের বিরুদ্ধে তাদের সামরিক অভিযান যেন মানবিক অভিযানের সাথে সাংঘর্ষিক না হয়।”

সোমবারের হামলার ঘটনার পর ত্রাণকাজ করা গোষ্ঠীগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে, তারা যে কোনও সময়ের চেয়ে এখন তাদের কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে বেশি চিন্তিত।

এদিকে, সোমবারের ওই হামলার পর এক বিবৃতিতে হামাস বলেছে, আন্তর্জাতিক মানবিক ত্রাণ সংস্থাগুলোর কর্মীদের ‘আতঙ্কিত করার উদ্দেশ্যেই’ এ হামলা চালানো হয়েছে যেন তারা তাদের মিশন অনুসরণ করা থেকে বিরত থাকে।