মন্টানা থেকে ‘উঠে গেল’ টিকটকে নিষেধাজ্ঞার আদেশ?

টিকটকের মাধ্যমে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি মার্কিন নাগরিকদের ডেটায় প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে, এমন ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে দীর্ঘদিন ধরেই শঙ্কা প্রকাশ করে আসছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Dec 2023, 09:00 AM
Updated : 3 Dec 2023, 09:00 AM

যুক্তরাষ্ট্রের মন্টানা অঙ্গরাজ্যে টিকটকের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞার আদেশ তুলে নেওয়ার রায় দিয়েছেন মার্কিন এক ফেডারেল বিচারক।

এ দণ্ডাদেশ স্থগিত না করলে ২০২৪ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম অঙ্গরাজ্য হিসেবে মন্টানায় চীনা কোম্পানি বাইটড্যান্স মালিকানাধীন সামাজিক মাধ্যম টিকটকের ব্যবহার নিষিদ্ধ হয়ে যেত।

বিচারক ডনাল্ড মলয় বলেন, তিনি এ নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেছেন, কারণ, এটি ‘রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার পরিপন্থী’। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক আইনি নোটিশ অনুযায়ী, ‘এসবি ৪১৯’ নামের বিশেষ বিলটি কীভাবে মার্কিন ‘সংবিধানে অনুমোদিত হবে’, তা দেখাতেও ব্যর্থ হয়েছে মন্টানা।

“অঙ্গরাজ্যটি এসবি ৪১৯’কে গ্রাহক সুরক্ষার বিল হিসেবে দেখানোর চেষ্টা করলেও এখনকার প্রেক্ষাপটে মন্টানার আইন বিভাগ ও অ্যাটর্নি জেনারেল যে গ্রাহক সুরক্ষার চেয়ে টিকটকের চীনা সম্পর্ক নিয়ে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছেন, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।” --আদালতের নথিতে লেখেন বিচারক মলয়।

তবে, বিচারক মলয়ের রায় কেবল প্রাথমিক আজ্ঞা ছিল। ফলে, এ নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের ঝুঁকিও রয়েছে।

মলয়ের দাবি, ‘মন্টানার জনগণকে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নজরদারি থেকে সুরক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্যে’ ওই বিলকে অঙ্গরাজ্যের আইনে পরিণত করার নথিতে স্বাক্ষর করেছিলেন মন্টানার গভর্নর গ্রেগ জিয়ানফর্তে।

ওই আইনের অধীনে মন্টানার দুই লাখ টিকটক ব্যবহারকারী অ্যাপটি ব্যবহারের জন্য কোনো শাস্তির মুখে না পড়লেও প্রতিবার কেউ অ্যাপটিতে প্রবেশ বা এর বিভিন্ন কনটেন্ট ডাউনলোড করলে দৈনিক ১০ হাজার ডলার করে জরিমানা গুনতে হতো টিকটক ও অন্যান্য কোম্পানিকে।

বিলটির বিরুদ্ধে থাকা ব্যক্তিরা যুক্তি দেখিয়েছেন, আইনটি ব্যবহারকারীদের প্রথম সংশোধনীর অধিকার লঙ্ঘন করে।

নিষেধাজ্ঞা স্থগিত হওয়ার সিদ্ধান্তের পর এক বিবৃতিতে টিকটকের মুখপাত্র বলেন, বিচারক যে এ অসাংবিধানিক আইন নাকচ করে মন্টানার লাখ লাখ টিকটক ব্যবহারকারীকে নিজেদের প্রকাশ করার, এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের ও কমিউনিটি খোঁজার সুযোগ অব্যাহত, তা নিয়ে কোম্পানি খুবই আনন্দিত।

‘বেআইনি উপায়ে টিকটকের ওপর নিষেধাজ্ঞা ঠেকানোকে’ কারণ দেখিয়ে মে মাসে মন্টানার বিরুদ্ধে মামলা করেছিল বাইটড্যান্স। এর আগে অঙ্গরাজ্যটির কর্মকর্তারা অভিযোগ করেছেন, টিকটকের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের ডেটায় প্রবেশের পাশাপাশি অনলাইনে থাকা অপ্রাপ্তবয়স্কদের কাছে ক্ষতিকারক কনটেন্ট দেখাতে পারে চীনা সরকার।

এর আগে অবশ্য টিকটক দাবি করেছে, তারা চীনা সরকারের সঙ্গে কোনো ডেটা শেয়ার করে না।

নিষেধাজ্ঞা স্থগিত হওয়ার বিষয়ে মন্টানার অ্যাটর্নি জেনারেল বিবৃতিতে বলেন, বিচারকের সিদ্ধান্ত ‘এ মূহুর্তে প্রাথমিক পর্যায়ে’ আছে। তিনি আরও যোগ করেন, এ নিষেধাজ্ঞার পক্ষে লড়াই চালিয়ে যাবে অঙ্গরাজ্যটি।

২০২০ সালের জানুয়ারিতে মার্কিন স্থল সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনীর সরকারি ডিভাইসে টিকটক ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়। সে সময় অ্যাপটিকে ‘নিরাপত্তা ঝুঁকি’ বলেও আখ্যা দিয়েছিল মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ।

টিকটকের মাধ্যমে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি মার্কিন নাগরিকদের ডেটায় প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে, এমন ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে দীর্ঘদিন ধরেই শঙ্কা প্রকাশ করে আসছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। এমনকি গোটা যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাপটি ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার বিষয়টিও বিবেচনায় রেখেছেন তারা।