স্তন ক্যান্সার সচেতনতা, ছবি সরিয়ে ভুল স্বীকারে ফেইসবুক

সম্প্রতি এক সুইডিশ প্রতিষ্ঠানের পোস্ট করা স্তন ক্যান্সার সচেতনতাবিষয়ক এক ভিডিও সরিয়ে নেওয়ার পর তা ‘ভুল’ হয়েছে স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করেছে ফেইসবুক।

তাহমিন আয়শা মুর্শেদবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Oct 2016, 03:55 PM
Updated : 21 Oct 2016, 03:55 PM

ক্যান্সারফোনডেন-এর ওই অ্যানিমেটেড ভিডিওতে, গোলাপি বৃত্ত দিয়ে নারীদের স্তন চিহ্নিত করা হয় এবং সন্দেহজনক ফোলা অংশ শনাক্তের উপায় দেখানো হয়। একে ‘আপত্তিকর’ বলে দাবি করে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যমের প্লাটফর্ম। 

চলতি বছর সেপ্টেম্বরে এক নাপাম শিশুর নগ্ন ছবি নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়ে ফেইসবুক। ওই ছবিতে দেখা যায়, ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় বাজেভাবে পুড়ে যাওয়া একজন মেয়ে নাপাম আক্রমণ থেকে পালিয়ে যাচ্ছে। 'নগ্নতার' অভিযোগে ফেইসবুক আলোচিত এই ছবি সরিয়ে নিলে তা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। যদিও পরে নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ফেইসবুক।

এক বিবৃতিতে ফেইসবুকের এক মুখপাত্র বলেন, “সুইডিশ প্রচারাভিযানের ওই ছবি এখন অনুমোদিত।" তিনি আরও বলেন,  "আমরা খুব দুঃখিত। আমাদের দল প্রতি সপ্তাহে লাখ লাখ ছবি প্রক্রিয়াকরণ করে থাকে আর কিছু ক্ষেত্রে আমরা ভুল বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করে ফেলি।"

"এই ছবিটি আমাদের বিজ্ঞাপন নীতিমালা লঙ্ঘন করে না। আমরা আমাদের ত্রুটির জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। সেই সঙ্গে বিজ্ঞাপনদাতাদের জানাচ্ছি যে আমরা তাদের বিজ্ঞাপন অনুমোদন করছি", বলেন তিনি।

ফেইসবুক তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আগে ক্যান্সারফোনডেন ফেইসবুক-কে পাঠানো এক চিঠিতে বলে, এই প্রচারণা ‘আপত্তিকর কিছু উদ্দেশ্য করে’ করা হয়নি। এমন সমস্যা হতে পারে ভেবেই স্তন ক্যান্সারের ওই প্রচারণায় গোলাপি চারকোণা ‘ইলাসট্রেটিং’ ব্যবহার করা হয় বলে দাবি করে ওই প্রচারণা সংস্থা।

সন্তানদের স্তন্যপান করানো মায়েদের কিছু ছবি ফেইসবুক তাদের সাইট থেকে সরিয়ে দিয়েছে বলেও অভিযোগ আনা হয়েছে।

একই পরিস্থিতে আরও কিছু ছবি সরিয়ে নেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে, যেগুলোর মধ্যে আছে ম্যামোগ্রামের ছবি আর এক টেকনিশিয়ানের ছবিও। ওই টেকনিশিয়ান স্তন ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের স্তনবৃন্ত ও তার আশপাশে ট্যাটু এঁকে দিতেন। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক