এ বছরই ঘুরে দাঁড়াবে বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজার: প্রতিবেদন

আইফোন নির্মাতা অ্যাপল ও চীনা প্রতিদ্বন্দ্বী হুয়াওয়ে প্রিমিয়াম বিভাগের বাজারে বিজয়ী হতে পারে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2024, 07:37 AM
Updated : 30 March 2024, 07:37 AM

এ বছরে বৈশ্বিক বাজারে স্মার্টফোন সরবরাহ ৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে পারে। মুদ্রাস্ফীতি কমায় বাজারে চাহিদা বাড়ার পাশাপাশি জেনারেটিভ এআইয়ের উত্থান ক্রেতাদের বিভিন্ন প্রিমিয়াম ডিভাইসের দিকে আকৃষ্ট করবে।

প্রযুক্তিবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চের এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে রয়টার্স।

আগের গবেষণায় দেখা গেছে, গত বছর স্মার্টফোনের বৈশ্বিক সরবরাহ ৪ শতাংশ কমেছিল। এর কারণ, অনিশ্চিত অর্থনীতির মধ্যে ভোক্তারা পকেট সামলিয়ে চলছিলেন।

ভারত, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার মতো উঠতি বাজারগুলোকে স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে, বিশেষ করে ‘বাজেট-ইকোনোমি’ বিভাগের অন্যতম বড় চালিকা শক্তি হিসাবে দেখা হয় বলে উল্লেখ রয়েছে প্রতিবেদনে।

২০২৩ সালে বিক্রি কমেছিল বাজেট বিভাগের ফোনেও, যা ২০২৪ সালে ১১ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে পারে বলে উঠে এসেছে গবেষণায়। পাশাপাশি, ক্যারিবিয়ান ও লাতিন আমেরিকার বিভিন্ন অঞ্চলেও এ বিভাগের চাহিদা বাড়তে পারে।

কাউন্টারপয়েন্ট বলেছে, আফ্রিকার মতো অঞ্চলে মুদ্রাস্ফীতি কমা ও স্থানীয় মুদ্রার স্থিতিশীলতার কারণে, ১৫০ থেকে ২৪৯ ডলারের এ বিভাগে ফোন বিক্রি বাড়তে পারে।

এ ছাড়া, চীনা মোবাইল নির্মাতা কোম্পানি অপো, ভিভো ও শাওমির মতো ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে বাড়তে থাকা প্রতিযোগিতার পাশাপাশি আইটি ডিভাইসের বাড়তি চাহিদাও বাজেট বিভাগের বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে।

৬০০ থেকে ৭৯৯ ডলার মূল্যের প্রিমিয়াম বিভাগের ফোনে ১৭ শতাংশ বৃদ্ধি দেখা যেতে পারে। প্রতিবেদন অনুসারে, কাঙ্ক্ষিত জেনারেটিভ এআইয়ের উত্থান ও ফোল্ডেবল ফোনের জনপ্রিয়তা এ বিভাগের চাহিদা বাড়াবে।

আইফোন নির্মাতা অ্যাপল ও চীনা প্রতিদ্বন্দ্বী হুয়াওয়ে প্রিমিয়াম বিভাগের বাজারে বিজয়ী হতে পারে বলে উল্লেখ করেছে কাউন্টারপেয়ন্ট।

আইফোনে চাহিদার স্থিতিশীলতা, বিশেষ করে উদীয়মান বাজারে, অ্যাপলকে সাহায্য করবে। পাশাপাশি, হুয়াওয়ের নতুন ‘৫জি কিরিন’ চিপসেট আসার ফলে চীনে শক্তিশালী অবস্থান বজায় রাখবে বলে ধারণা প্রকাশ পেয়েছে গবেষণায়।

২০২৪ সালের প্রথম ছয় সপ্তাহে হুয়াওয়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় চীনে আইফোন বিক্রি ২৪ শতাংশ কমেছে, যা কাউন্টারপয়েন্ট আগেই অনুমান করেছিল।

এদিকে, আইফোনে গুগলের জেমিনাই এআই ইঞ্জিন ব্যবহার করার জন্য অ্যাপল আলোচনায় রয়েছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে রয়টার্স।