সাবিনার হ্যাটট্রিকে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ

সেমি-ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

কাঠমান্ডু থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Sept 2022, 09:10 AM
Updated : 10 Sept 2022, 09:10 AM

তৃতীয় মিনিটেই মিলল গোল। উঁকি দিল ভুটানের সেই স্মৃতি। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পাসিং ফুটবলে গোলের ফুল ফোটাতে শুরু করলেন সাবিনা খাতুন-মনিকা চাকমারা। হ্যাটট্রিক পূরণের আনন্দে ডানা মেললেন অধিনায়ক। ভুটানের মাটিতে সেই গোল উৎসবের পুনরাবৃত্তি না হলেও পাকিস্তানকে ঠিকই উড়িয়ে দিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

নেপালের কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে শনিবার গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ৬-০ গোলে জিতেছে বাংলাদেশ। মালদ্বীপকে ৩-০ গোলে হারিয়ে পথচলা শুরু করা দল টানা দুই জয়ে সেরা চারের পথে এগিয়ে গেল অনেকটাই।

বাংলাদেশের বাকি তিন গোলদাতা মনিকা, সিরাত জাহান স্বপ্না ও ঋতুপর্ণা।

টানা দুই ম্যাচ হারল ২০১৪ সালের পর সাফের এবারের আসর দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফেরা পাকিস্তান। নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা ৩-০ গোলে হেরেছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে।

২০১৮ সালের সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপে ভুটানের চ্যাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে পাকিস্তানকে ১৭-০ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই ম্যাচের অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে নামে তারা।

বৃষ্টিভেজা ভারি মাঠে বলের নিয়ন্ত্রণ রাখা কঠিন হচ্ছিল দুই দলের জন্যই। তার মাঝেই গোল আদায় করে নেয় বাংলাদেশ। এক ডিফেন্ডারের পায়ের ফাঁক দিয়ে বল বের করে বক্সে বাড়ান সাবিনা। মিশাল আকরাম ক্লিয়ার করতে গিয়ে ঠিকঠাক পারেননি, বক্সের বাইরে পেয়ে যান মনিকা। প্রথম ছোঁয়ায় নিচু জোরাল শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই মিডফিল্ডার।

পিছিয়ে পড়ার পর পাকিস্তান বল পায়ে রেখে খেলার চেষ্টা করে। গোলের সুযোগ তৈরি করতে থাকে বাংলাদেশ। ১১তম মিনিটে কৃষ্ণা রানী সরকারের আড়াআড়ি ক্রসে হেড নিতে গোলমুখে কেউ ছিল না। একটু পর বক্সের ভেতর ভালো জায়গা থেকে উড়িয়ে মেরে হতাশ করেন সাবিনা। ১৭তম মিনিটে মনিকার শটও যায় বাইরে।

২৮ থেকে ৩৫-এই সাত মিনিটে যেন ম্যাচের ভাগ্য নিশ্চিত হয়ে যায়। মাঝমাঠ থেকে আক্রমণে ওঠা মারিয়া বেশ খানিকটা এগিয়ে পাকিস্তান অধিনায়ক মারিয়া জামিল খানের পাশ দিয়ে বল বাড়ান সাবিনাকে। অধিনায়কের থ্রু পাস খুঁজে নেয় বক্সে থাকা স্বপ্নাকে। প্রথম ছোঁয়ায় বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন এই ফরোয়ার্ড।

৩০তম মিনিটে তৃতীয় গোলের সুর বেঁধে দেন মনিকা। মাঝমাঠ থেকে বল পায়ে বক্সের একটু ওপরে এসে সাবিনার উদ্দেশ্যে পাস বাড়ান তিনি। পাকিস্তানের ডিফেন্ডার হাজেরা খান ক্লিয়ার করতে গেলে বল তার পায়ে লেগে উঠে যায় উপরে। দারুণ টোকায় সুযোগ কাজে লাগান সাবিনা।

বাংলাদেশ আবারও গোলের আনন্দে মেতে ওঠে ৩৫তম মিনিটে। আঁখির লং পাস ধরে ডান দিক থেকে ক্রস বাড়ান সানজিদা। গোল মুখ থেকে অনায়াসে বাকি কাজ সারেন সাবিনা।

একটু পর অধিনায়কের পাস থেকে কৃষ্ণার শট গোলরক্ষকের গ্লাভস ছুঁয়ে ক্রসবারে লাগে। বিরতির আগে পাকিস্তান পাল্টা আক্রমণে সুযোগ পায় ব্যবধান কমানোর। গতি দিয়ে আঁখিকে পেছনে ফেলেন জুলফিয়া নাজির। কিন্তু পাকিস্তানের এই ফরোয়ার্ডের শট স্লাইডে প্রথম দফায় আটকান গোলরক্ষক রুপনা চাকমা, এরপর পুরোপুরি বিপদমুক্ত করেন আঁখি।

দ্বিতীয়ার্ধে কৃষ্ণাকে তুলে ঋতুপর্না চাকমাকে নামান কোচ। এ অর্ধেও একই সুর-তাল-লয় ধরে রেখে খেলতে থাকে বাংলাদেশ। আর রক্ষণে আরও বেশি মনোযোগী হয় পাকিস্তান।

৫৮তম মিনিটে ডান দিক থেকে মারিয়ার ক্রসে গোলমুখ থেকে হেডে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন সাবিনা। চলতি আসরে এটি প্রথম হ্যাটট্রিক।

সাফে এ নিয়ে দ্বিতীয় হ্যাটট্রিকের স্বাদ পেলেন ২৮ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। ২০১৬ সালে শিলিগুঁড়ির আসরে আফগানিস্তানকে ৬-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দেওয়া ম্যাচে পাঁচ গোল করেছিলেন তিনি।

৭৭তম মিনিটে মনিকার পাস ধরে বক্সের বাইরে থেকে দারুণ শটে লক্ষ্যভেদ করেন ঋতুপর্না। ঝাঁপিয়ে বলের নাগাল পাননি পাকিস্তান গোলরক্ষক শহীদ বুখারি।

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মারিয়া ও ইংল্যান্ড প্রবাসী নাদিয়া খানও পারেননি পাকিস্তানের ত্রাতা হতে। ইংল্যান্ডের লিগে খেলার অভিজ্ঞতা, গত মৌসুমে দূরপাল্লার শটে গোল করে হৈ-চৈ ফেলে দেওয়া নাদিয়া এক-দুবার হানা দিয়েছিলেন, কিন্তু আঁখি-মাসুরা পারভীনরা দারুণ দৃঢ়তায় সামলেছেন তাকে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে এর আগে একবারই মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ২০১০ এসএ গেমসে তারা জিতেছিল ১-০ গোলে। মূল সাফে প্রথম দেখাটাও দারুণ জয়ে রাঙিয়ে রাখল মেয়েরা।

আগামী মঙ্গলবার ‘এ’ গ্রুপে নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। প্রতিযোগিতার পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে পাকিস্তানকে স্রেফ খড়কুটোর মতো উড়িয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিল মেয়েরা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক