দলের ‘গভীরতায়’ মুগ্ধ আনচেলত্তি

সুযোগের অপেক্ষায় থাকা বেঞ্চের খেলোয়াড়দের মানসিকতার প্রশংসাও করলেন রেয়াল মাদ্রিদ কোচ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Jan 2024, 09:01 AM
Updated : 28 Jan 2024, 09:01 AM

চলতি মৌসুমে একবার-দুবার নয়, দশবার ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প লিখে জিতেছে রেয়াল মাদ্রিদ! সেরা একাদশে নিয়মিতরা অবদান রাখছেন দলের জয়ে; বেঞ্চ থেকে এসেও ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিচ্ছেন কেউ কেউ। দলের এমন গভীরতায়, বিশেষ করে বেঞ্চের খেলোয়াড়দের মানসিকতায় ভীষণ মুগ্ধ রেয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলত্তি।

লা লিগায় শনিবার পালমাসের মাঠে ২-১ ব্যবধানে জেতে প্রথমার্ধে বিবর্ণতার খোলসে বন্দি থাকা রেয়াল। ম্যাচের তিনটি গোলই হয় দ্বিতীয়ার্ধে। জাভি মুনোসের গোলে পিছিয়ে পড়ার পর খোলস ছেড়ে বেরিয়ে সমতা টানেন ভিনিসিউস জুনিয়র। শেষ দিকে ব্যবধান গড়ে দেন অহেলিয়া চুয়ামেনি।

চলতি লা লিগায় খেলা ২১ ম্যাচের মধ্যে এ নিয়ে ছয়বার ঘুরে দাঁড়িয়ে জিতল রেয়াল। এ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তিনবার এবং স্প্যানিশ সুপার কাপেও একবার হোঁচটের ধাক্কা সামলে জিতেছে তারা।

পালমাস ম্যাচের নির্ণায়ক গোলটি চুয়ামেনি করেছিলেন বদলি নেমে। ম্যাচ শেষে বেঞ্চের খেলোয়াড়দের অদম্য মানসিকতার প্রশংসা আনচেলত্তি করলেন।

“এই রসদ আমাদের হাতে আছে। বেঞ্চে যারা থাকে, তারাও অবদান রাখতে সত্যিই অনুপ্রাণিত থাকে। আমাদের লকারে এই জিনিসগুলো আছে এবং এর সুযোগ নিতে আমরা পছন্দ করি। যদিও, আমরা শুরুতে এগিয়ে যেতে এবং বাকবদলের সময়টুকু উপভোগ করতে চাই।”

“কিন্তু বিষয়গুলো সবসময় এভাবে হয় না। যখন হবে না, আমি বেঞ্চের দিকে পেছন ফিরে তাকাব এবং ম্যাচের গতিপথ বদলে দেওয়ার জন্য আমার হাতে অনেক বিকল্প আছে। কেননা, সবাই অবদান রাখার জন্য প্রস্তুত।”

পালমাসের এগিয়ে যাওয়া গোলটি ম্যাচের গতিপথ বদলে দিয়েছিল বলে মনে করেন আনচেলত্তি। একই সঙ্গে দলের প্রথমার্ধের পারফরম্যান্স যে দর্শনীয় ছিল না, তাও জানালেন রেয়াল কোচ।

“গোল হজম করাটাই ম্যাচের দিক বদলে দিয়েছিল। আরও ছড়িয়ে খেলার জন্য প্রথমার্ধে কৌশল বদল করেছিলাম আমরা। প্রথম অর্ধে আমাদের পারফরম্যান্স দেখার মতো ছিল না, কিন্তু ভালো ছিল।”

“শীর্ষ পর্যায়ের একটি দলের বিপক্ষে খেলছি, সেটা আমরা ভুলতে পারি না। বল পায়ে পালমাস ভালো এবং তাদের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো কঠিন। এ মৌসুমের লা লিগায় এ পর্যন্ত তারা মাত্র দুই ম্যাচে প্রথমার্ধে গোল হজম করেছিল।”

২১ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার টেবিলে শীর্ষে রয়েছে রেয়াল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা জিরোনার পয়েন্ট ৫২। রেয়ালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে।

২২ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে রয়েছে পালমাস।