৬টি ধর্ষণের অভিযোগ থেকে রেহাই পেলেন ফ্রান্সের মঁদি

ছয়টি ধর্ষণ ও একটি যৌন নির্যাতনের অভিযোগ থেকে রেহাই পেয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির এই ডিফেন্ডার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Jan 2023, 01:53 PM
Updated : 13 Jan 2023, 01:53 PM

প্রায় দেড় বছর ধরে একাধিক ধর্ষণ মামলায় ভীষণ বেকায়দা অবস্থায় ছিলেন ম্যানচেস্টার সিটি ফুটবলার বাঁজামাঁ মঁদি। আপাতত তিনি স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারেন। ছয়টি ধর্ষণ ও একটি যৌন নির্যাতনের অভিযোগ থেকে রেহাই পেয়েছেন এই ডিফেন্ডার। 

২০২১ সালের অগাস্টে তার বিরুদ্ধে চারটি ধর্ষণ ও একটি যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছিল চেশায়ার কনস্টাবুলারি। তখন থেকে পুলিশি হেফাজতে থাকার মধ্যেই ওই বছরের নভেম্বরে তার বিরুদ্ধে আরও দুটি ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়। 

আর গত বছর আরেক জন তার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ করেন। 

ইংল্যান্ডের চেস্টার ক্রাউন আদালতে শুক্রবার জুরি বোর্ডের রায়ে ছয়টি ধর্ষণ ও একটি যৌন নির্যাতনের মামলায় মুক্তি পান মঁদি। তবে জুরি বোর্ড একটি ধর্ষন ও একটি যৌন নির্যাতনের মামলায় কোনো রায় দেয়নি।

তরুণীদের যৌন নিপীরণের দায়ে মঁদির সঙ্গে অভিযুক্ত ছিলেন তার বন্ধু ৪১ বছর বয়সী লুইস সাহাও। চেস্টার ক্রাউন আদালতের রায়ে তিনটি ধর্ষণের অভিযোগে নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন তিনিও। তার বিরুদ্ধে তিনটি ধর্ষণ ও তিনটি যৌণ নিপীড়নের অভিযোগে রায় দিতে পারেনি জুরি। 

তরুণী ও টিনএজারদের ধর্ষণের ঘটনায় মঁদির বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ ছিল। এসব মামলার রায়ে জুরি যখন তাকে নির্দোষ ঘোষণা করছিলেন, তখন দুই হাতে মুখ ঢেকে রেখেছিলেন তিনি।

মঁদির বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে ২৯ বছর বয়সী এক নারী যৌন হেনস্থার এবং ২০২০ সালের অক্টোবরে ২৪ বছর বয়সী আরেক জন ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। এই দুটি অভিযোগে রায় দিতে পারেনি জুরি। 

ফ্রান্সের হয়ে ১০ ম্যাচ খেলা মঁদি ২০১৮ সালে পেয়েছেন বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ। রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৭ সালে মোনাকো থেকে রেকর্ড ৫ কোটি ২০ লাখ পাউন্ডের বিনিময়ে যোগ দেন পেপ গুয়ার্দিওলার সিটিতে। সে সময় মঁদিই ছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি ডিফেন্ডার। 

ম্যানচেস্টারের দলটির হয়ে এই লেফট-ব্যাক জিতেছেন তিনটি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা। তবে প্রথম দফায় অভিযুক্ত হওয়ার পরই মঁদিকে বহিষ্কার করেছিল প্রিমিয়ার লিগের দলটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক