নোয়াখালী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও মাছচাষিদের উঠান বৈঠক

নোয়াখালী সদরের ধর্মপুর ইউনিয়নের হাজীরহাটে একটি খামারবাড়ির উঠানে এ বৈঠক আয়োজন করে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ও সামুদ্রিক বিজ্ঞান বিভাগ।

নোয়াখালী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 July 2022, 01:05 PM
Updated : 29 July 2022, 01:05 PM

নিরাপদ মাছ চাষ ও পুষ্টি নিরাপত্তা বিষয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রান্তিক মাছচাষিদের একটি উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার সকালে নোয়াখালী সদরের ধর্মপুর ইউনিয়নের হাজীরহাটে একটি খামারবাড়ির উঠানে এ বৈঠক আয়োজন করে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ও সামুদ্রিক বিজ্ঞান বিভাগ।

বৈঠকে প্রান্তিক মাছচাষিরা মাছ চাষে নিজেদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন এবং মৎস্য ও সামুদ্রিক বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা প্রান্তিক মাছচাষিদের সঙ্গে নিরাপদ মাছ চাষ ও পুষ্টি বিষয়ে ধারণা বিনিময় করেন।

এ উঠান বৈঠকে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে নিজেদের সমৃদ্ধ করতে পেরে খুশি প্রান্তিক মাছচাষি ও শিক্ষার্থীরা।

উঠান বৈঠকে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ও সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল্যাহ আল-মামুন বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ের চাষিদের কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার ফলাফল পৌঁছে দেওয়াই এ ধরনের উঠান বৈঠকের মূল লক্ষ্য।

উঠান বৈঠকে বঙ্গবন্ধু কৃষিপদক পাওয়া আল বারাকা মৎস্য হ্যচারি মালিক ও সফল মৎস্যচাষি শাহেদ চৌধুরী তার সফলতার গল্প শোনান।

বৈঠকে প্রান্তিক পর্যায়ের ৩০ জন মৎস্য চাষি, বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ও সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী ও শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মাছ চাষিদের নিয়মিত পরামর্শ দিয়ে নিরাপদ মাছ চাষে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়। উঠান বৈঠকে অংশগ্রহণকারী প্রান্তিক মাছ চাষিদের বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে মাছের পোনা উপহার দেওয়া হয়।

এ সময় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ও সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষকদের মধ্যে সহকারী অধ্যাপক ভক্ত সুপ্রতিম সরকার, সহযোগী অধ্যাপক ড. শ্যামল কুমার পাল, প্রভাষক ফসানা কবির দিপ্তী, স্মৃতি চক্রবতী ও জাহানরা লিপি উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক