নেত্রকোণায় কিশোরীকে ‘দলবেঁধে ধর্ষণ’, ২ যুবক গ্রেপ্তার

মেয়েটির বাবা থানায় মামলা করার পর মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

নেত্রকোণা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 02:23 PM
Updated : 27 July 2022, 02:23 PM

নেত্রকোণার মদনে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে এক কিশোরীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে মদন-কেন্দুয়া সড়কের কাইটাইল বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার মেয়েটির বাবা মদন থানায় মামলা করেছেন। এরপর রাতেই পুলিশ দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

এরা হলেন মদন উপজেলার বাশরী (বাফলা) গ্রামের নূর মিয়ার ছেলে রাব্বি মিয়া (২৫) ও একই গ্রামের মঞ্জিল হকের ছেলে অন্তর মিয়া (২৩)।

মামলার অপর তিন আসামি হলেন একই গ্রামের প্রয়াত আব্দুল কদ্দুছের ছেলে সারু (২৫), কাঞ্চন বাবুর্চীর ছেলে বাছির (২৭) ও শাহানুর মিয়া (৩৮)।

মামলার বরাতে মদন থানার ওসি মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কিশোরীটি ও তার মা আত্মীয় বাড়ি থেকে তাদের বাড়ি ফিরছিলেন। তাদের ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা কাইটাইল বাজারের পাশে পৌঁছার পর তারা নেমে যান। এরপর কিশোরীরকে রাস্তার এক পাশে রেখে অন্য পাশে অটোরিকশার ভাড়া দিচ্ছিলেন তার মা।

“এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই আরেকটি অটোরিকশায় ৫ যুবক উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্সে গান বাজিয়ে কিশোরীকে তুলে নিয়ে যায়।”

মামলায় আরও বলা হয়, ভাড়া দিয়ে রাস্তার পাশে মেয়েকে না পেয়ে ডাকচিৎকার শুরু করেন কিশোরীর মা। মেয়েকে না পেয়ে বাড়ির লোকজন নিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

মামলায় আরও অভিযোগ করা হয়, ওই ৫ যুবক কিশোরীকে চেতনানাশক খাইয়ে বাররী গ্রামের একটি ঘরে আটকে রাতে দলবেঁধে ধর্ষণ করে। পরদিন সকালে আবার ধর্ষণ করার সময় প্রতিবেশীরা টের পেলে তারা পালিয়ে যায়।

পরে তারা কিশোরীর পরিবারকে খবর দিলে লোকজন গিয়ে তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে যান।

ওসি জানান, এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে নিজ নিজ বাড়ি থেকে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ওসি আরও জানান, কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক