বৃষ্টি-জোয়ারে পটুয়াখালীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

জোয়ারের পানিতে আমনের ক্ষেত, ঘর-বাড়ি ও মাছের ঘের তলিয়ে গেছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ।

পটুয়াখালী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Sept 2022, 09:47 AM
Updated : 13 Sept 2022, 09:47 AM

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে পটুয়াখালীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। জোয়া‌রের পানিতে বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি প্রবেশ করেছে লোকালয়ে।

সোমবার সকাল থেকে জেলায় মাঝারি ও ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দুইশ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে পটুয়াখালী আবহাওয়া অফিস ও খেপুপাড়া রাডার স্টেশন।

পটুয়াখালী আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবা সুখী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, মঙ্গলবার সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৪.৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আর খেপুপাড়া রাডার স্টেশনের উচ্চ পর্যবেক্ষক মো. ফিরোজ কিবরিয়া বলছেন, কলাপাড়া এলাকায় মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছেন তারা।

অব্যাহত বৃষ্টি আর উচ্চ জোয়ারে শহর রক্ষা বাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে পটুয়াখালী পৌর শহরের কলেজ রোড, মহিলা কলেজ রোড, পুরান বাজার, আদালত পাড়া, চরপাড়া, নিউমার্কেটসহ বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

তলিয়ে গেছে আমনের ক্ষেতসহ বহু রাস্তাঘাট, ঘর-বাড়ি, পুকুর ও মাছের ঘের। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ।

রাঙ্গাবালী উপজেলার বাহেরচর এলাকার কৃষক মো. রাসেল হাওলাদার বলেন, “উচ্চ জোয়ারে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ২-৩ ফুট পানিতে দফায় দফায় প্লাবিত হচ্ছে চরঞ্চল। জোয়ারের পানি ঢুকে তলিয়ে গেছে গ্রামের পর গ্রামে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে আমাদের মতো খেটে খাওয়া মানুষ।”

পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী মো. রেজাউল বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে জোয়ারের সময় নদীর পানি বিপৎসীমার ২৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

আবার রাতের জোয়ারের সময় এর চেয়েও বেশি হতে পারে বলে ধারণা করছেন তিনি।

এদিকে বৈরি আব হাওয়ায় সাগরে সহস্রাধিক মাছ ট্রলার নিরাপদ আশ্রয়ে পৌঁছছে বলে কুয়াকাটা আলীপুর মৎস্য বন্দর সমবায় সমিতির সভাপতি ও লতাচাপলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আনছার উদ্দিন মোল্লা জানিয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক