মধ্যরাতে রেল লাইনের ক্লিপ খুলছিল ২ যুবক, আটক করল গ্রামবাসী

নাশকতার উদ্দেশে তারা রেল লাইনের ক্লিপগুলো খুলছিলেন বলে দাবি নীলফামারী রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের।

নীলফামারী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 April 2024, 05:17 PM
Updated : 2 April 2024, 05:17 PM

নীলফামারী সদরে মধ্যরাতে রেল লাইনের ফিসপ্লেটের স্লিপার ক্লিপ খোলার সময় দুই যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী। তাদের কাছ থেকে ১৬টি ক্লিপ ও হাতুড়িসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ জব্দ করা হয়েছে।

সোমবার মধ্যরাতে সদর উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের খয়রাতনগর রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন ৩৪২ নম্বর রেলসেতু এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয় বলে জানান সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার ওসি এম নুরুল ইসলাম।

নাশকতার উদ্দেশে তারা রেল লাইনের ফিসপ্লেটের স্লিপার ক্লিপগুলো খুলছিলেন বলে দাবি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের।

আটকরা হলেন- সোনারায় ইউনিয়নের জয়চণ্ডী পুটিহাট এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে আল আমিন এবং উত্তর মুশতর কুখাপাড়া এলাকার আবুল কালাম আজাদের ছেলে মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ওরফে বেলাল।

স্থানীয়দের বরাতে ওসি নুরুল ইসলাম বলেন, মধ্যরাতে এলাকাবাসী রেল লাইনের ফিসপ্লেটের স্লিপার ক্লিপ খোলার শব্দ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই দুই যুবককে আটক করেন। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১৬টি স্লিপার ক্লিপ ও ক্লিপ খোলার যন্ত্রাংশ এবং একটি হাতুড়ি জব্দ করা হয়।

সৈয়দপুর রেলওয়ের জ্যেষ্ঠ উপসহকারী প্রকৌশলী (পথ) সুলতান মৃধা বলেন, “স্থানীয়রা বিষয়টি না দেখলে, বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। তবে রেল লাইনের ফিসপ্লেট ক্ষতিগ্রস্ত না হওয়ায় বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়া গেছে। রেল চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

নাশকতার উদ্দেশে ওই দুই যুবক ক্লিপগুলো খুলছিলেন বলে দাবি এ কর্মকর্তার।

আটকদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে; তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে জানান ওসি নুরুল ইসলাম।

গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় রেল লাইনের ফিসপ্লেটের ক্লিপ খোলার সময় স্থানীয়দের ধাওয়ার মুখে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ওই সময় ডোমার-চিলাহাটি রেলপথে প্রায় দেড় ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল।