চাঁদপুরে জোড়া খুন মামলায় গ্রেপ্তার ১০, রহস্য উদঘাটনের দাবি পুলিশের

গত ৭ সেপ্টেম্বর হাজীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বড়কুল ইউনিয়নের বড়কুল উত্তর গ্রামে উত্তম বর্মন ও তার স্ত্রী কাজলী রানীকে হাত-পা বেঁধে হত্যা করা হয়।

চাঁদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2024, 03:57 AM
Updated : 24 Feb 2024, 03:57 AM

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে স্বামী-স্ত্রী খুনের মামলায় এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভয়ভীতি প্রদর্শন, চুরি ও চোরদের চিনে ফেলায় খুনের এ ঘটনা ঘটে বলে দাবি পুলিশের।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মো. সোহাগ হোসেন ওরফে সোহাগ মুন্সি (২৯), মিজান ওরফে গোলাম আজম ওরফে মো. মিজান হোসেন (৬৯), মাসুদ রানা (২৫), শ্যামল চন্দ্র শীল (২০), মো. আলমাস (৩৫), মো. নেছার আহম্মেদ (৩০), মো. রাকিব হোসেন (২৩), মো. রাশেদ ওরফে রাসেল (২৬) মাসুদ কামাল (৪৫) শাহ আলম বাবুল (৪২)।

তাদের মধ্যে সোহাগ মুন্সি ও মিজান গোলাম আজম (৬৯) আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানায় পুলিশ। সব আসামি কারাগারে আছেন।

রোববার বিকালে চাঁদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) সুদীপ্ত রায় সাংবাদিকদের কাছে ঘটনার বিবরণ তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, “এ মামলায় আমরা ১০ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। এর মধ্যে দুজন আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারীসহ কয়েক জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদেরও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

ভয়ভীতি প্রদর্শন, চুরি ও চোরদের চিনে ফেলায় এ হত্যাকাণ্ড দাবি করে সুদীপ্ত রায় বলেন, “তবে অন্য বিষয়ও আমরা খতিয়ে দেখছি। হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণটি উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।”

গত ৭ সেপ্টেম্বর চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বড়কুল ইউনিয়নের বড়কুল উত্তর গ্রামে উত্তম বর্মন (৬০) ও তার স্ত্রী কাজলী রানীকে (৪৫) হাত-পা বেঁধে হত্যা করা হয়। রাতের কোনো এক সময়ে ওই গ্রামের পাইন্না বাড়ির (কালা শিকদার বাড়ি) দুলাল সাহার ঘরে জানালা কেটে দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায়। ঘটনার পরদিন নিহতদের মেয়ে রিনা রানীর অভিযোগের ভিত্তিতে হাজীগঞ্জ থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের হয়। মামলায় মোট ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) রাশেদ চৌধুরী, ডিআইও-১ মো. মনিরুল ইসলাম, হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম, চাঁদপুর প্রেস ক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান সুমন, সাবেক সভাপতি শরীফ চৌধুরী, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি আলম পলাশ, সময় টিভির জেলা প্রতিনিধি ফারুক আহমেদ, চ্যানেল আইয়ের জেলা প্রতিনিধি মোরশেদ আলমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা ছিলেন।

[প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক]