নরসিংদী রেলস্টেশনে পুলিশের তল্লাশিতে সংঘর্ষ-গুলি, আটক ৬০

নাশকতার সন্দেহে যাদের আটক করা হয়েছে, যাচাই-বাছাই শেষে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নরসিংদী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Oct 2023, 06:38 AM
Updated : 28 Oct 2023, 06:38 AM

নরসিংদী রেলস্টেশনে ঢাকাগামী তিতাস কমিউটার ও আন্তঃনগর এগারসিন্দুর ট্রেনে তল্লাশি চালিয়ে ৬০ যাত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সকাল ৭টার দিকে তিতাস কমিউটার ট্রেনে উঠতে বাধা পেয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিএনপির নেতাকর্মীরা। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আন্তঃনগর এগারসিন্দুর ট্রেনেও তল্লাশি চালিয়ে বেশ কয়েকজনকে আটক করে পুলিশ।

এসব ঘটনায় আটক করা ৬০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দফায় প্রিজন ভ্যানে করে থানায় নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন নরসিংদী মডেল থানার ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়া।

ওসি বলেন, “সকালে শতাধিক বিএনপি কর্মী তিতাস কমিউটার ট্রেনে উঠতে না পেরে পুলিশের দিকে রেললাইনের পাথর ছুঁড়ে মারেন। এতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরে জনগণের জানমাল রক্ষায় শর্টগানের ৩৫টি ফাঁকা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়া হয়।”

সরেজমিনে নরসিংদী রেলস্টেশনে দেখা যায়, ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়ার নেতৃত্বে অন্তত ৫০ জন পুলিশ সদস্য সেখানে অবস্থান করছেন। তাদের সঙ্গে রয়েছেন নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরাও। স্টেশনে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য ট্রেন থামিয়ে তারা ভেতরে ঢুকে যাত্রীদের তল্লাশি করছেন।

একে একে সন্দেহভাজনদের আটক করে স্টেশনের ভিআইপি কক্ষে এনে রাখা হচ্ছিল। যাদের আটক করা হয়েছে, তাদের অধিকাংশই যুবক বয়সী।

আটক ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন রায়পুরা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান। তাকে স্টেশনটির ভিআইপি কক্ষে রাখা অবস্থায় এই প্রতিবেদক কথা বলার চেষ্টা করেন। তবে পুলিশ সদস্যদের হস্তক্ষেপে তার বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

তল্লাশি কার্যক্রমে অংশ নেওয়া মডেল থানার এসআই অভিজিৎ চৌধুরী বলেন, “বিনা টিকিটের যাত্রীদের আমরা ট্রেন থেকে নামিয়ে দিচ্ছি। ঢাকায় বিএনপি ও জামায়েতের মহাসমাবেশে অংশ নিয়ে নাশকতা করতে পারেন এমন সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের শুধু আটক করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে নতুন মামলা করা হবে।”

তবে রেলস্টেশনে আটক কয়েকজন দাবি করেন, তারা কোনো সমাবেশে যোগ দিতে ঢাকা যাচ্ছিলেন না। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক প্রয়োজনে তারা ঢাকায় রওনা হয়েছিলেন।

পুলিশ অযথা তল্লাশির নামে তাদের হয়রানি করছেন বলে ক্ষোভ জানান যাত্রীরা বলেন, যারা সমাবেশে যোগ দেবেন, তারা তো দুই-একদিন আগেই ঢাকায় পৌঁছে গেছেন।

ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়া বলেন, ঢাকায় সমাবেশকে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, তার জন্যই তল্লাশি চালানো হচ্ছে। নাশকতার সন্দেহে যাদের আটক করা হয়েছে, যাচাই-বাছাই শেষে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।