শাবিতে মদপানে বাধা দিয়ে ‘মারধরের শিকার’ নিরাপত্তাকর্মী

বহিষ্কৃত পুলিশ কর্মকর্তাসহ দুজনকে জালালাবাদ থানায় সোপর্দ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Oct 2022, 07:53 PM
Updated : 3 Oct 2022, 07:53 PM

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক টিলায় মদপানে বাধা দেওয়ায় এক নিরাপত্তাকর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে সাময়িক বরখাস্ত এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

সোমবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীকালুর টিলায় এ ঘটনা ঘটে বলে সহকারী প্রক্টর মো. মিজানুর রহমান জানান। 

এ ঘটনায় মো. মশিউর রহমান নামের ওই বহিষ্কৃত পুলিশ কর্মকর্তাসহ দুজনকে জালালাবাদ থানায় সোপর্দ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

ঘটনার বর্ণনায় নিরাপত্তাকর্মী জুয়েল বলেন, দুপুর ২টায় তাদের ডিউটি শুরু হলে তিনি তার সহকর্মী মেহেদী টিলার উপরে যান।

"চারজন লোক গাজী কালুর মাজারের পাশে মদপান করছিল। আমরা তাদেরকে টিলায় মদপান না করে চলে যেতে বলে টিলার নিচে চলে আসি।"

কিছুক্ষণ পর আবার গেলে তখনও ওই চারজনকে টিলায় পদপান করতে দেখের বলে জুয়েল জানান।

“আবার গিয়ে তাদের চলে যেতে বললে পুলিশ কর্মকর্তা আমাদের ওপর চড়াও হন এবং আমাদের পরিচয়পত্র দেখতে চান। আমরা পরিচয়পত্র বের করে দিলে গালি-গালাজ করে আমাদের কার্ডটি ছুড়ে ফেলে দেন।”

জুয়েলের অভিযোগ, এক পর্যায়ে তিনি জুয়েলকে মারধর করে হুমকি-ধমকি দিয়ে নিচে চলে যেতে বলেন। এ সময় ওই পুলিশ মেহেদীর প্রতিও চড়াও হন। ঘটনাটি শুনে প্রক্টরিয়াল বডি সেখান যান।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ''বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই পুলিশ কর্মকর্তাসহ দুজনকে হস্তান্তর করেছে। পুলিশ কর্মকর্তা বহিষ্কৃত অবস্থায় আছেন। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

ওই কর্মকর্তার সঙ্গে থাকা অন্যজনের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

মো. মশিউর রহমান নামের ওই ব্যক্তি চট্টগ্রামের মিরসরাই থানায় দায়িত্ব পালন করছিলেন; দুই বছরের জন্য তিনি বহিষ্কৃত রয়েছেন বলে প্রক্টরিয়াল বডিকে জানিয়েছেন।

সহকারী প্রক্টর মিজানুর রহমান বলেন, "ওই পুলিশ কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন যে তিনি মদপান করতেই টিলায় গিয়েছিলেন।" 

তবে নিরাপত্তাকর্মীকে মারধরের বিষয়টি নিয়ে সহকারী প্রক্টর বলেন, “পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে সে মনে হয় হাত দিয়ে ধরতে পারে। ওইরকমভাবে মারধর করেনি।” 

এর আগে গত ২৫ জুলাই ওই টিলায়ই মাদকসেবীদের হাতে খুন হয়েছিলেন শাবির লোক প্রশাসনের বিভাগের শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক