বগুড়ায় কলেজের অধ্যক্ষকে মারধরের অভিযোগে থানায় জিডি

জনপ্রতিনিধি বলছেন, অধ্যক্ষ বিভিন্ন অভিযোগ ঢাকার জন্য ‘মারপিটের নাটক’ সাজিয়েছেন।

বগুড়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 July 2022, 04:27 AM
Updated : 26 July 2022, 04:27 AM

বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় এক কলেজের অধ্যক্ষকে মারধরের অভিযোগে থানায় জিডি হয়েছে।

উপজেলার লাঠিগঞ্জ স্কুল অ্যাণ্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রুস্তম আলী এই জিডিতে অভিযোগ করেন, সোমবার উপজেলার নামা দাঁড়াইল এলাকায় তাকে মারধর করা হয়।

রুস্তম আলী বলেন, তিনি বাড়ি থেকে কলেজে যাচ্ছিলেন। পথে নামা দাঁড়াইল এলাকায় তার অটোরিকশা থামায় এলাকার কিছু ব্যক্তি।

“ ওই এলাকার বাসিন্দা নজরুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন আমাকে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে মারপিট করে। কলেজের পরিচালনা পর্ষদ কেন গঠন করা হচ্ছে না এই অভিযোগ তুলে তারা মারপিট করে।”

পরিচালনা পর্ষদ সম্পর্কে অধ্যক্ষ কিছু বলতে চাননি।

তবে নজরুল ইসলাম খান পাল্টা অভিযোগ করেন, “বর্তমানে এডহক কমিটি দিয়ে চলছে প্রতিষ্ঠানটি। আবারও এডহক কমিটি গঠনের পাঁয়তারা করছেন অধ্যক্ষ। এই প্রশ্ন করেছিল এলাকাবাসী। তবে সেখানে আমি ছিলাম না। নিজের দোষ ঢাকতে থানায় অভিযোগ করে একটি নাটক সৃষ্টির পাঁয়তারা করছেন অধ্যক্ষ।”

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান গাবতলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ।

চেয়ারম্যান বলেন, “সেখানে মারপিটের কোনো ঘটনা ঘটেনি। তবে গত ২৩ জুলাই কলেজে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিনেওয়াজ খান। সেদিন অধ্যক্ষ স্কুল বন্ধ রেখেছিলেন এবং অনুষ্ঠানে আসেননি।

“এছাড়া শিক্ষকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগও আছে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে। তাই এলাকার লোকজন বলেছে, পুনর্মিলনীতে আসলেন না, আজ কেন আসছেন? ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তার অপকর্ম ঢাকতেই মারপিটের অভিযোগ এনেছেন। এখন শিক্ষক মারপিট একটা ইস্যু। সেই ইস্যুই কাজে লাগাতে চাচ্ছেন রুস্তম আলী। টোটাল ঘটনার সঠিক তদন্ত হওয়া উচিত।”

পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন গাবতলী থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক