পা দিয়ে লিখে জিপিএ ৫ পেল কুড়িগ্রামের মানিক

মানিক এর আগে পিইসি, জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছিল।

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Nov 2022, 02:03 PM
Updated : 28 Nov 2022, 02:03 PM

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষায় পা দিয়ে লিখে জিপিএ ৫ পেয়েছে শারীরিক প্রতিবন্ধী মানিক রহমান; তার প্রাপ্ত নম্বর উপজেলার মধ্যে সর্বোচ্চ। 

মানিক ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় হতে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। 

সোমবার দুপুরে ফলাফল পাওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় মানিক রহমান বলে, এ ফল তার প্রত্যাশিতই ছিল। এ ফলাফলে সে অত্যন্ত খুশি। এখন ঢাকা নটরডেম কলেজে ভর্তি হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। সে ভবিষ্যত একজন কম্পিউটার প্রকৌশলী হতে চায়।

উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা গ্রামের ওষুধ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান এবং কলেজ শিক্ষক মরিয়ম বেগমের ছেলে মানিক রহমান। জন্ম থেকেই তার দুই হাত নেই। দুই পা অসমান। এক পায়ে কলম ধরেই সে শিক্ষাজীবন অতিবাহিত করছে। পিইসি, জেএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ ৫ পেয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেয়।

মানিকের মা মরিয়ম বেগম সাংবাদিকদের বলেন, “আমার দুই ছেলে। মানিক বড় এবং ছোট ছেলে মাহীম অষ্টম শ্রেণিতে পড়ছে। মানিক প্রতিবন্ধী এটা আমরা মনে করি না। জন্ম থেকেই তার দুটো হাত না থাকলেও ছোটবেলা থেকেই আমরা তাকে পা দিয়ে লেখার অভ্যাস করিয়েছি।

“মানিক আমাদের জন্য গর্বের। সবাই আমার ছেলের জন্য দোয়া করবেন। সে যেন তার স্বপ্নগুলো বাস্তবায়ন করতে পারে।”

বাবা মিজানুর রহমান বলেন, মানিকের লেখাপড়ার জন্য যা করার দরকার তাই করবেন তিনি। মানিকের ফলাফলে তিনি গর্বিত ও খুশি। তিনি সকলের দোয়া এবং আর্শিবাদ কামনা করেন।

মানিকের স্কুল ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী বলেন, “শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ার পরও মানিক রহমান অন্য শিক্ষার্থীদর চেয়ে ভাল ফলাফল করেছে। তার প্রাপ্ত নম্বর ১২৪২; যা উপজেলার মধ্যে সর্বোচ্চ।”

মানিকের এমন ফলাফলের কথা শুনে আত্মীয়-স্বজনরা মিষ্টি নিয়ে তাদের বাড়ি আসছেন এবং তাকে উৎসাহ দিচ্ছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক