শুধু ইভিএম পদ্ধতিতে একটু ত্রুটি হচ্ছে: সাক্কু

‘অন্য সব বিষয়’ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী মো. মনিরুল হক সাক্কু শুধু ইভিএমে ভোট গ্রহণ নিয়ে ‘কিছু’ সমস্যা হচ্ছে বলে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক কুমিল্লা থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 June 2022, 04:50 AM
Updated : 15 June 2022, 05:29 AM

বুধবার সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর পর সাড়ে ৯টায় হোচ্চা মিয়া উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন টেবিল ঘড়ি প্রতীকের প্রার্থী।

এ সময় দুইবারের মেয়র বলেন, “অন্য সবকিছু ঠিক আছে। কিন্তু ইভিএম পদ্ধতিতে একটু ক্রটি আছে, মেশিনে কোনো কোনো কেন্দ্রে কাজ করতাছে না।

“আমি তো ভোট দিয়া আইলাম। টিপ দিলে তো (প্রতীক) শো করবে, আপনি কাকে ভোট দিছেন শো করবে, কিন্তু (এখানে) শো করে না। একটা কেন্দ্রে গেছি, (প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে) বলছি। কাপ্তানবাজার গেছি… ছবি উঠে না। যারেই ভোট দেই ছবিডা তো উঠব, (কিন্তু) ছবিই উঠে না।“

“শুধু ইভিএম পদ্ধতিতে একটু ক্রুটি হচ্ছে, এইডাই কথা, অন্য কিছু না।”  

আবহাওয়া খারাপ বিধায় ভোটার হয়তো একটু কম আসছে। এ ছাড়া অন্য কোনো অভিযোগ নেই বলে জানান টেবিল ঘড়ি প্রতীকের প্রার্থী।

শেষ পর‌্যন্ত ভোটে থাকবেন কি-না জানতে চাইলে সাক্কু বলেন, “গতকালই তো কইছি, যুদ্ধ থেকে তো ফিইর‌্যা যাওন যায় না। রেজাল্ট নিয়া যাইতে হইব। জয়-পরাজয় যাই হোক রেজাল্ট নিয়া যাব।”

মোটামুটি ভোট পড়লে এখনও তিনি দ্বিগুণ ভোটে জয়ের আশাবাদী বলে জানান। তিনি বলেন, “ভোটই তো পরতেছে না। মোটামুটি একটা ভোট কালেকশন হলে আমি জয়ের আশা করি।”

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার পরই তিনি দলীয় সমর্থকদের নিয়ে কেন্দ্র পরিদর্শনে বেরিয়ে যান।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, এদিন সকাল ৮টায় নির্ধারিত সময়েই এ নগরীর ১০৫টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, যা একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে।

সোয়া দুই লাখের বেশি ভোটারের এ নগরে ভোট নেওয়া হচ্ছে ইভিএমে। আর এবারই প্রথম সব কেন্দ্র ও ভোট কক্ষে রয়েছে সিসি ক্যামেরা।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের গত দুইবারের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বুধবার সকালে হোচ্চা মিয়া উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে নিজের ভোট দিয়ে আঙুল তুলে দেখাচ্ছেন বিজয়ের চিহ্ন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

মেয়র পদের পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে আলোচনা মূলত তিনজনকে ঘিরে। গত দুইবারের মেয়র বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা মনিরুল হক সাক্কুর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত। বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সারও নজর কেড়েছেন।

নির্বাচন বিশ্লেষকরা এ নির্বাচনকে গত দুইবারের মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর জন্য বড় পরীক্ষা হিসেবে দেখছেন, সেই সঙ্গে এই ভোট হবে কাজী হাবিবুল আউয়াল নেতৃত্বাধীন নতুন নির্বাচন কমিশনের জন্যও ‘লিটমাস টেস্ট’।

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন ২০২২

সময়: বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা চলবে ভোটগ্রহণ।

ভোটার: ২,২৯,৯২০ জন (পুরুষ ১,১২,৮২৬; নারী ১,১৭,০৯২ এবং হিজড়া ২)।

ওয়ার্ড: ২৭টি সাধারণ, ৯টি সংরক্ষিত।

ভোটকেন্দ্রে: ১০৫টি কেন্দ্রের ৬৪০টি ভোট কক্ষে হবে ভোটগ্রহণ।

প্রার্থী: মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৬ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ফিরে দেখা

দুটি পৌরসভা নিয়ে ২০১১ সালের জুলাই মাসে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর দুটি নির্বাচন হয়েছে।

দশ বছর আগে প্রথম নির্বাচনে নির্দলীয় প্রতীকে ভোট হলেও ২০১৭ সালে দলীয় প্রতীকে মেয়র নির্বাচন হয়।

দুই নির্বাচনেই ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পরাজিত করে বিএনপির প্রার্থী জয়ী হন।

২০১৭ সালের ৩০ মার্চ কুমিল্লা সিটিতে সর্বশেষ ভোট হয়েছিল। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি দায়িত্ব নেওয়ার পর ১৭ মে প্রথম সভা হয়। তাদের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হয় এ বছরের ১৬ মে।

সিটি করপোরেশনে মেয়াদপূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

তবে এবার নির্ধারিত সময়ে ভোট করতে পারেনি ইসি। কাজী হাবিবুল আউয়াল কমিশন দায়িত্ব নিয়ে ২৫ এপ্রিল এ তফসিল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, এসব নির্বাচনের প্রার্থীরা ১৭ মে পর্যন্ত রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা; ১৯ মে বাছাইয়ের পর ২৬ মে পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করার সময় নির্ধারণ করা হয়। সব প্রক্রিয়া শেষে ভোট হচ্ছে বুধবার।

আরও পড়ুন:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক