সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ঘরে প্রবেশ করে বৃদ্ধাকে হত্যা, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

বিভিন্ন মানুষের স্বর্ণালংকার রেখে টাকা ধার দিতেন তিনি

বরগুনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 July 2022, 02:25 PM
Updated : 26 July 2022, 02:25 PM

বরগুনার আমতলী উপজেলায় প্রবাসী মেয়ের বাড়িতে এক বৃদ্ধা খুন হয়েছেন; এ সময় টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট হয়।

সোমবার গভীর রাতে উপজেলার দক্ষিণ টেপুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান আমতলী থানার ওসি এ কে এম মিজানুর রহমান।

মঙ্গলবার দুপুরে বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শাহাভানু (৭০) নামের ওই বৃদ্ধা কাতার প্রবাসী মেয়ে শাহিনুরের নতুন বাড়িতে নাতি অন্তরকে (১২) নিয়ে বসবাস করতেন। তিনি ওই গ্রামের মৃত জব্বার হাওলাদারের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, অন্যদিনের মতো সোমবার রাতে শাহাভানু ও তার নাতি অন্তর ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। মঙ্গলবার সকালে অন্তর ঘুম থেকে জেগে ঘরের দরজা খোলা দেখে এবং নানিকে খুঁজে না পেয়ে মুঠোফোনে তার মা শাহিনুরকে জানায়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অন্তর পুকুরে তার নানির মৃতদেহ ভাসতে দেখে চিৎকার দেয়। পরে স্থানীয়রা এসে পুলিশে খবর দেন।

অন্তর বলে, “সকালে ঘুম থেকে জেগে দরজা খোলা দেখি। কিন্ত নানিকে দেখিনি। পরে মাকে ফোনে জানাই। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুকুরে নানির মরদেহ ভাসতে দেখে ডাক-চিৎকার দেই।”

শাহাভানুর বড় জামাতা মো. হানিফ হাওলাদার বলেন, “হত্যাকারীরা ঘরের পিছন দিয়ে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে প্রবেশ করে আমার শাশুড়িকে হত্যা করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “আমার শাশুড়ি এলাকার বিভিন্ন মানুষের স্বর্ণালংকার রেখে টাকা ধার দিতেন। হত্যাকারীরা ওই স্বর্ণালংকার ও ঘরে থাকা দুই লাখ টাকা নিয়ে গেছে।”

ইউপি সদস্য মো. আবু সালেহ বলেন, বৃদ্ধার মেয়ে কাতার প্রবাসী। তিনি তার নাতি অন্তরকে নিয়ে মেয়ের নতুন বাড়িতে বসবাস করতেন। মঙ্গলবার সকালে তার মরদেহ পুকুরে ভাসতে দেখে আমরা পুলিশে খবর দেই। পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশের ধারণা, হত্যাকারীরা বৃদ্ধাকে হত্যা করে মরদেহ পুকুরে ফেলে রেখেছে। বৃদ্ধার মরদেহে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন আমতলী থানার ওসি এ কে এম মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, “মরদেহের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনা রহস্যজনক। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক