৫৩ বছর পরও দেশে গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার নেই: গয়েশ্বর

“লুটতরাজ লুণ্ঠনের মধ্য দিয়ে কোষাগার আজকে খালি হয়ে গেছে এবং আকাশচুম্বী জিনিসপত্রের দামে আজকে মানুষ দিশেহারা,” বলেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 March 2024, 07:35 AM
Updated : 26 March 2024, 07:35 AM

দেশের স্বাধীনতা অর্জনের পাঁচ দশকেও মানুষের বাক স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার ও ভোটের অধিকার ‘প্রতিষ্ঠিত হয়নি’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেছেন, “আজকে ৫৩ বছর পর দেখছি, যে কারণে আমরা স্বাধীনতার যুদ্ধ করেছি সেই কারণটি এখনো বলবৎ। অর্থাৎ এখনো গণতন্ত্র নাই, মানুষের মৌলিক অধিকার নাই, এখনো মানুষের বাক স্বাধীনতা নাই, এখনো গণমাধ্যমে স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠিত হয়নি, এখনো মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়নি।

“লুটতরাজ লুণ্ঠনের মধ্য দিয়ে জাতীয় অর্থনীতি অর্থাৎ জাতীর অর্থনীতির কোষাগার আজকে খালি হয়ে গেছে এবং আকাশচুম্বী জিনিসপত্রের দামে আজকে মানুষ দিশেহারা।”

স্বাধীনতা দিবসের সকালে শেরে বাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন গয়েশ্বর।

‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে’ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, “আজকে এই প্রাঙ্গণ থেকে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যে, আমাদের আকাঙ্ক্ষিত গণতন্ত্র যত দিন অর্জিত না হবে, আমাদের লড়াই চলবে, চলতে থাকবে।”

সকাল সাড়ে ১০টায় বিএনপির নেতাকর্মীদের নিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও আবদুল মঈন খান দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় তারা মোনাজাত করেন।

দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, আবদুল আউয়াল মিন্টু, অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ফরহাদ হালিম ডোনার, মাসুম আহমেদ তালুকদার, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা মাহবুব উদ্দিন খোকন, এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন, রফিক শিকদার, এসএম জাহাঙ্গীর, রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, মহানগর উত্তরের আমিনুল হক, মুক্তিযোদ্ধা দলের ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, যুব দলের মোনায়েম মুন্না, উলামা দলের নেছারুল হক, জাসাসের লিয়াকত আলী, ছাত্র দলের রাকিবুল ইসলাম রাকিব, নাছির উদ্দীন নাছির, তাঁতী দলের আবুল কালাম আজাদ, ঢাকা জেলা বিএনপির খন্দকার আবু আশফাক শ্রদ্ধা নিবেদনের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন।