ভোলা বিএনপির ৬০ জনের আগাম জামিন

“জামিনে থাকা সময়ের মধ্যে তাদেরকে ভোলা জেলা দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত,” বলেন আইনজীবী কায়সার কামাল।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 August 2022, 03:26 PM
Updated : 7 August 2022, 03:26 PM

ভোলায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৬০ জনকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছে হাই কোর্ট।

এ বিষয়ে তিনটি আবেদনের শুনানি করে বিচারপতি মো. মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. সেলিমের হাই কোর্ট বেঞ্চ রোববার এ আদেশ দেয়।

আগাম জামিনের মেয়াদ শেষে তাদের ভোলা দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত।

জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, আইনজীবী জয়নুল আবেদীন, আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক আইনজীবী কায়সার কামাল।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মিজানুর রহমান।

জামিন পাওয়াদের মধ্যে ভোলা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ ট্রুম্যান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক, যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন কবীর সুপান ছাড়াও জেলা যুবদলের সভাপতি জামাল উদ্দিন লিটন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের সেলিম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন হাওলাদার রয়েছেন।

লোড শেডিং ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে গত ৩১ জুলাই ভোলা জেলা বিএনপির কর্মীরা সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বেঁধে গেলে আবদুর রহিম নামে স্বেচ্ছাসেবক দলের এক কর্মী গুলিতে নিহত হন। ওই সময় গুলিবিদ্ধ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলম পরে ঢাকায় মারা যান।

ওই সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে ৭১ জনের নাম করে, আরও ২৫০ থেকে ৩০০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন ভোলা সদর থানার এসআই জসিম উদ্দিন। এছাড়া সংঘর্ষের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আবদুর রহিমের নিহতের ঘটনায় আরেকটি মামলা করা হয়।

আসামিদের মধ্যে ৬২ জন জামিন আবেদন করেন; তাদের মধ্যে ৬০ জন আদালতে উপস্থিত হন, তারা সবাই জামিন পেয়েছেন।

আরও পড়ুন:

Also Read: ভোলায় পুলিশ ও বিএনপির সংঘর্ষ, নিহত ১

Also Read: ভোলায় সংঘর্ষ: পুলিশের ২ মামলায় আসামি ৪০০

Also Read: সংঘর্ষে আহত ভোলার ছাত্রদল নেতা নূর আলমের মৃত্যু

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক