সরকারের আচরণ ‘বখাটেদের মত’: রিজভী

রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করে নিয়েছেন দ্রব্যমূল্য বেড়েছে সীমাহীন।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2024, 09:26 AM
Updated : 24 Feb 2024, 09:26 AM

বর্তমানের চড়া বাজার পরিস্থিতির দায় সরকার বিএনপির ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে অভিযোগ করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকারের এ ধরনের আচরণ ‘পাড়া-মহল্লার বখাটেদের মত’।

নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের চড়া দাম নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শনিবার সকালে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, “ডামি নির্বাচনের সিন্ডিকেটের সরকার উদ্ভট কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। সম্পূর্ণভাবে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার এখন দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির দায়ও চাপাচ্ছে বিএনপির ওপরে। গতকাল গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে শেখ হাসিনা বলেছেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে সরকার উৎখাতে আন্দোলকারীদের… তাদেরও কিছু কারসাজি আছে।

“এ ধরনের কথা বলার অর্থ তার স্বেচ্ছাতন্ত্র পঁচে-গলে বিকৃত হয়ে গেছে। তাই মিথ্যা, ডাহা মিথ্যা, অসত্য, বানোয়াট, ভিত্তিহীন কথা বলা ছাড়া শেখ হাসিনার আর কোনো পুঁজি নেই। এ সমস্ত বক্তব্য বিকারগ্রস্ত মনেরই বহিঃপ্রকাশ। এ কারণে হাস্যকর মিথ্যাচার করছেন। তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন দ্রব্যমূল্য বেড়েছে সীমাহীন।”

“নিজেদের ব্যর্থতা এবং নানা ধরনের অপকর্মের দায় নির্লজ্জের মতো বিএনপির ঘাড়ে চাপিয়ে দেওয়ার অভ্যাস সরকারের পুরনো এই বৈশিষ্ট্য, পাড়া-মহল্লার বখাটেদের মতো,” বলেন বিএনপির এই নেতা।

শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “উনার বোধহয় অনেক সম্পদ আছে, মানুষ নানা কথা বলে। কিন্তু রাজনীতির যে নৈতিকতা বা রাজনীতির যে একটা ইতিবাচক যে সম্পদ- সত্য কথা বলা, সুশাসন দেওয়া, গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় রাখা এই পুঁজি তার শেষ হয়ে গেছে। বিভিন্ন জায়গায় নানা কথা প্রচলিত আছে যে সরকারপ্রধান এবং মন্ত্রীদের সম্পদ… এক এমপির যে ২০০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ পাওয়া গেছে ইংল্যান্ডে… ২৬০টা বাড়ি…চিন্তা করা যায়!”

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য কারাবন্দি হাবিবুর রহমান হাবিব 'গুরুতর অসুস্থ' হলেও কারাগারে তার চিকিৎসা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন রিজভী।

সংবাদ সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপিকা সাহিদা রফিক, অধ্যাপক মামুন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, কেন্দ্রীয় নেতা এম এ মালেক, মুনির হোসেন, সাইয়েদুল আলম বাবুল, আমিনুল ইসলাম, তারিকুল আলম তেনজিংসহ আরও অনেকে বক্তব্য রাখেন।