আওয়ামী লীগের টানা চতুর্থ জয় ‘দেখছেন’ কাদের

২৮ অক্টোবরের সহিংসতা নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, “বিএনপির লক্ষ্য নির্বাচনকে বানচাল করা, অংশ নেওয়া নয়। নির্বাচন চাইলে তারা এমন সন্ত্রাস করত না।”

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Oct 2023, 09:14 AM
Updated : 30 Oct 2023, 09:14 AM

২৮ অক্টোবর দলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ‘বিজয়ের মনোভাব’ দেখেছেন জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দাবি করেছেন, আগামী নির্বাচনে তারা টানা চতুর্থবারের মতো জয় পেতে যাচ্ছেন।

বিএনপি-জামায়াত ও সমমনা দলগুলোর ৭২ ঘণ্টা অবরোধ ডাকার পরদিন সোমবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে দলের মহানগর ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী এবং নির্বাচিত দলীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া অবরোধে দেশের স্থাপনা রক্ষায় দলীয় নেতা-কর্মীদের সতর্ক পাহারায় থাকার নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের।

গত শনিবার ঢাকায় বিএনপির ‘মহাসমাবেশকে’ ঘিরে নানা ঘটনাপ্রবাহের কথা তুলে ধরে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, “সেদিন ‘শত উসকানি’ সত্ত্বেও ‘শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ’ সফলভাবে শেষ করায় দলীয় নেতা-কর্মীদের ধন্যবাদ।

“২৮ অক্টোবর দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে বিজয়ের মনোভাব দেখেছি। এটাই আমাদের বিজয়। এটাই বিরোধীদের ব্যর্থ আন্দোলনের বিরুদ্ধে নির্বাচনমুখী আমাদের বিজয়ের অভিযাত্রা। দেশের বর্তমান অবস্থার নিরিখে আগামী জাতীয় নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে টানা চতুর্থ বারের মতো।”

‘বিজয়’ ঘরে তুলতে নেতা-কর্মীদের ঐক্যের ওপরও জোর দেন আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি বলেন, “আমাদের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে কেউ পরাজিত করতে পারবে না। গত কয়েকদিন ধরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের যে স্পিরিট ছিল, এটা থাকলে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত।”

আওয়ামী লীগ নেতার অভিযোগ, বিএনপি আসলে নির্বাচন হতে দিতে চায় না। তিনি বলেন, “বিএনপির লক্ষ্য নির্বাচনকে বানচাল করা, অংশ নেওয়া নয়। নির্বাচন চাইলে তারা এমন সন্ত্রাস করত না।”

মঙ্গলবার থেকে বিরোধী দলের কর্মসূচির মধ্যে রাজপথে সক্রিয় থাকার নির্দেশনা দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, “বিএনপির অবরোধ থেকে দেশের উন্নয়ন স্থাপনা রক্ষায় দলীয় নেতাকর্মীদের সতর্ক পাহারায় থাকতে হবে।”

বিএনপির ‘এক দফা’ ও আন্দোলন ‘ভুয়া’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, “বিএনপি কর্মীরা এখন বলছে, ‘তারেক রহমান ভুয়া, মির্জা ফখরুলও ভুয়া। কান টানলাম জীবনেও আর আসব না। এই দল করব না’, কান ধরে বলেছে।

“বিএনপির আন্দোলনের পতন গোলাপবাগে শুরু হয়েছে।"

মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, মাহবুব উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম ছাড়াও সম্পাদকমণ্ডলী, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন।