টিন্টেড সানস্ক্রিন কি সাধারণের মতোই কার্যকর?

সাদা ছাড়াও ত্বকের রংয়ের সাথে মিলিয়ে বিভিন্ন বর্ণের সানস্ক্রিনকে বলা হয় টিন্টেড সানস্ক্রিন।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2023, 09:51 AM
Updated : 30 Nov 2023, 09:51 AM

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে বাঁচতে এবং ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে নিয়মিত সানস্ক্রিন ব্যবহার জরুরি।

বয়সের ছাপ, রোদে পোড়াভাব, বিবর্ণতা ও শুষ্কতা কমানোর পাশাপাশি ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পারে সানস্ক্রিন।

সকালে তাড়াহুড়া করে বের হওয়ার সময় যতটা সম্ভব কম সময়ে তৈরি হওয়ার প্রয়োজন হয়। টিন্টেড সানস্ক্রিন ব্যবহার এক্ষেত্রে উপকারী।

টিন্টেড সানস্ক্রিন বলতে যা বোঝায়

নিউ ইয়র্ক’য়ের ‘অরেন্ট্রিক মেডিকেল গ্রুপ’ বোর্ড প্রত্যয়িত ত্বক বিশেষজ্ঞ জোডি লোগের্ফো বলেন, “টিন্টেড সানস্ক্রিন হল ‘বেইজ কভারেজ’ বা ত্বকের স্বাভাবিক বর্ণের সাথে সামঞ্জস্য পণ্য, যা সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে সরক্ষা দেয়।”

“এই রং পাওয়া যায় পণ্যে থাকা আয়রন অক্সাইড ও বর্ণযুক্র টাইটেনিয়াম ডাইঅক্সাইডের যৌগ থেকে। এর সাথে সূর্যালোক থেকে বাঁচতে উচ্চ বর্ণচ্ছটাযুক্ত টাইটেনিয়াম ডাইঅক্সাইড ইউভি ফিল্টার যোগ করা থাকে”- রিয়েলসিম্পল ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ব্যাখ্যা করেন তিনি।

সানস্ক্রিনে থাকা রঞ্জক সূর্যরশ্মি থেকে সুরক্ষা দেওয়ার পাশপাশি ত্বকের খুঁত ঢাকতেও সহায়তা করে। বিভিন্ন বর্ণের ত্বকের জন্য বাজারে ভিন্ন ভিন্ন শেইডের টিন্টেড সানস্ক্রিন পাওয়া যায়।

এই সকল সানস্ক্রিনে আয়রন অক্সাইড, টাইটেনিয়াম অথবা জিংক অক্সাইডের সাথে মিশ্রিত থাকে।

নিউ ইয়র্ক’য়ের ‘মারমুর মেডিকেল’য়ের বোর্ড প্রত্যয়িত ত্বক বিশেষজ্ঞ র‍্যাচেল ওয়েস্টবে বলেন, “ত্বকের দৃশ্যমান রং ফুটিয়ে তুলতে টিন্টেড সানস্ক্রিনের রঞ্জক পদার্থ আলো প্রতিফলিত করে যা ট্রান্সলুসেন্ট কেমিকেল সানস্ক্রিন করতে পারে না।”

টিন্টেড সানস্ক্রিন কি সাধারণ সানস্ক্রিনের মতোই কার্যকর?

এই বিশেষজ্ঞদের মতে, এই দুই ধরনের সানস্ক্রিন সমানভাবেই কার্যকর। যদি সাধারণের চেয়ে বেশি কার্যকর নাও হয়, কোনোভাবে তার চেয়ে কম কার্যকর নয়।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘স্পেকট্রাম স্কিন অ্যান্ড লেজার’য়ের প্রতিষ্ঠাতা এবং বোর্ড প্রত্যয়িত ত্বক-বিশেষজ্ঞ জেরেমি ব্রাওয়ার বলেন, “টিন্টেড সানস্ক্রিন সাধারণ বা সাদা সানস্ক্রিনের সমান অথবা তার থেকে কিছুটা বেশি সুরক্ষা দেয় কারণ এতে জিংক অক্সাইড ও টাইটেনিয়াম ডাইঅক্সাইড নামক খনিজ উপাদান যোগ করা থাকে। ফলে কেবল সূর্যালোক থেকে সুরক্ষা দেয় না বরং মোবাইল বা কম্পিউটারের স্ক্রিন থেকে নির্গত হওয়া নীল আলো থেকেও রক্ষা কবজ হিসেবে কাজ করে।”

‘ইউভিএ’ এবং ‘ইউভিবি’ থেকে বাঁচতে ঘরে থাকা অবস্থায় সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে। এতে জালানার কাচ ভেদ করে আসা সূর্যালোক থেকে সুরক্ষা পাওয়া যাবে।

ডা. লোগের্ফো বলেন, “টিন্টেড সানস্ক্রিন সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি এবং বৈদ্যুতিক পর্দা থেকে নির্গত হওয়া নীল আলো থেকে সুরক্ষিত রাখে। ফলে অক্সিডেটিভ চাপের কারণে হওয়া বয়সের ছাপ, বলিরেখা, হাইপারপিগ্মেন্টেইশন থেকে সুরক্ষিত থাকা যায়।”

ব্যবহার পদ্ধতি

শিকাগো’র ‘অ্যাডভান্সড ডার্মাটোলজি’র মেডিকেল সৌন্দর্যবিদ কেইট ব্যালেরা বলেন্‌ “যে কোন ধরনের সানস্ক্রিন ব্যবহারের সময়ে মুখের পাশাপাশি গলা ও কানের দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।”

সকালের ত্বকের পরিচর্যায় সানস্ক্রিন একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। সারাদিন বাইরের থাকার ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময় পর পর কয়েক স্তরে সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

বাড়তি সুরক্ষা পেতে একাধিক সানস্ক্রিন ব্যবহার করা যায়। যেমন- বেইজ সানস্ক্রিন ব্যবহারের পরে টিন্টেড সানস্ক্রিন ব্যবহার করা। এতে ত্বকে নিখুঁতভাব ফুটে ওঠে এবং সুর্যালোক থেকেও সুরক্ষা পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন

Also Read: শুষ্ক ত্বকে যে ধরনের বডি ওয়াশ ব্যবহার করা শ্রেয়

Also Read: কী পরিমাণ এসপিএফ ত্বকের জন্য প্রয়োজন

Also Read: যে কারণে ঠোঁটেও সানস্ক্রিন দেওয়া উচিত