গুলশান হামলা: ফারাজের ট্রেইলারে যা দেখা গেল

ফারাজের ট্রেইলার প্রকাশ হয়েছে, সিনেমাটি মুক্তি পাবে ৩ ফেব্রুয়ারি।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Jan 2023, 05:46 PM
Updated : 16 Jan 2023, 05:46 PM

দেশে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ আটকে থাকলেও ভারতে ‘ফারাজ’ এগিয়ে যাচ্ছে মুক্তির পথে।

হানসাল মেহতা নির্মিত বলিউড সিনেমাটির ট্রেইলার সোমবার প্রকাশ হল প্রযোজনা সংস্থা টি সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে।

ঢাকার হলি আর্টিজান বেকারিতে ঝড় তোলা জঙ্গি হামলা নিয়ে এই সিনেমাটি তৈরি হয়েছে, যা মুক্তির দিন ঠিক হয়েছে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি।

২ মিনিট ৬ সেকেন্ডের ট্রেলারের শুরুতেই পর্দায় লেখা ওঠে ১ জুলাই ২০১৬, ঢাকা, বাংলাদেশ। এটা যে ঢাকা, তা বোঝাতেই যেন দেখানো হয় বাংলাদেশের রাজধানীর চিরচেনা যানজট।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারির আদলে নির্মিত একটি দোতলা রেস্তোরাঁ দেখানো হয় পরের শটেই। ছোট ছোট শটে দেখানো হয় খাবার তৈরিতে কর্মীদের ব্যস্ততা, সেই সঙ্গে ক্রেতাদের আনন্দময় সময় কাটানোর দৃশ্য।

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে গুলশানের ওই রেস্তোরাঁয় সশস্ত্র জঙ্গিরা হানা দিয়ে জিম্মি করেছিল দেশি-বিদেশি অনেককে। তার মধ্যেই ছিলেন বাংলাদেশি তরুণ ফারাজ আইয়াজ হোসেন।

উদ্ধার পাওয়া অন্যদের ভাষ্য অনুযায়ী, সেদিন জঙ্গিরা ফারাজকে মুক্তি দিতে চাইলেও তিনি বন্ধুদের ছেড়ে আসেননি। পরে অন্যদের সঙ্গে তাকেও মৃত্যুকে বরণ করতে হয়েছিল।

পরদিন কমান্ডো অভিযান চালিয়ে রেস্তোরাঁটি জঙ্গিমুক্ত করার পর ১৭ বিদেশি এবং ফারাজসহ তিন বাংলাদেশির লাশ উদ্ধার করা হয়, যাদের জঙ্গিরা খুন করেছিল।

ফারাজের ট্রেইলারের ১৮ সেকেন্ডের মধ্যে পর্দায় হাজির হয় সশস্ত্র জঙ্গি দল। এলোপাতারি গুলি, হত্যা আর চিৎকারে ভারী হয়ে ওঠে রেস্তোরাঁটি।

জঙ্গিদের সঙ্গে ফারাজের বাক-বিতণ্ডা, জিম্মিদের অসহায়ত্বের পাশাপাশি দেখানো হয় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা।

ট্রেইলারের এক পর্যায়ে জঙ্গিদের জবানে ফারাজ হোসেনকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় ‘বাংলাদেশের শাহজাদা’ হিসেবে।

Also Read: ‘ফারাজ’ এর মুক্তিতে ‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে ফারুকীর হতাশা

সন্তানের জন্য ফারাজের মায়ের আকুতি, জঙ্গিদের সঙ্গে ধর্ম ও মানবিক বিষয় নিয়ে ফারাজের আলাপচারিতা আর উদ্ধার অভিযান দিয়ে শেষ হয় ট্রেইলার। যেখানে জঙ্গিদের উদ্দেশে ফারাজকে বলতে শোনা যায়, “তোমাদের মতো মানুষদের কাছ থেকে আমার ইসলামকে ফিরিয়ে আনতে চাই।”

ফারাজের ট্রেইলারে বাংলাদেশ ও ঢাকার আবহ যুৎসইভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বলা যায়; যদিও ঢাকায় এর শুটিং হয়েছে বলে শোনা যায়নি। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চেহারা, পোশাক ও আচরণ নিয়েও সমালোচনা করার সুযোগ রাখেননি নির্মাতা।

জিম্মিদের অসহায়ত্ব ও জঙ্গিবাদের ভয়াবহতার পাশাপাশি ফারাজের সাহসিকতা, কোথাও মেকি ঠেকার মতো নয়।

এই সিনেমায় ফারাজের চরিত্রে অভিনয় করেছেন শশী কাপুরের নাতি জাহান কাপুর। এরমধ্য দিয়ে বলিউডে আরেক কাপুরের যাত্রা শুরু হল। পরেশ রাওয়ালের ছেলে আদিত্য রাওয়ালেরও অভিষেক হচ্ছে এই সিনেমা দিয়ে।

এক বিবৃতিতে হংসল মেহতা জানান, তরুণেরা কীভাবে সহিংসতায় জড়িয়ে পড়েন, তা আবিষ্কারের চেষ্টা করেছেন সিনেমায়। সেই সঙ্গে সহিংসতার বিরুদ্ধে দাঁড়াতে অসম সাহস ও মানবতার প্রয়োজন, সে বিষয়েও আলোকপাত করা হয়েছে সিনেমায়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক