জোলির চোখে হলিউড 'অস্বাস্থ্যকর’

“আমি একটি অগভীর জায়গায় বড় হয়েছি। বিশ্বের সমস্ত জায়গার মধ্যে হলিউড মোটেও কোনো স্বাস্থ্যকর জায়গা নয়, যেখানে আপনি স্বচ্ছতা খুঁজতে পারেন।"

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Dec 2023, 01:20 PM
Updated : 7 Dec 2023, 01:20 PM

হলিউডকে 'অগভীর' এবং 'অস্বাস্থ্যকর’ জায়গা বলছেন অস্কারজয়ী মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। সাথে এও জানিয়েছেন, এই সময়ে দাঁড়িয়ে নিজের ক্যারিয়ারের সিদ্ধান্ত নিতে হলে কখনোই তিনি অভিনয়কে বেছে নিতেন না।

সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জোলি হলিউড নিয়ে আগ্রহ হারানো এবং প্রাক্তন স্বামী ব্র্যাড পিটের সঙ্গে বিচ্ছেদ পরবর্তী মানসিক অবস্থা নিয়ে খোলামেলা কথা বলেন।

এ নায়িকার ভাষায়, “আমি একটি অগভীর জায়গায় বড় হয়েছি। বিশ্বের সমস্ত জায়গার মধ্যে হলিউড মোটেও কোনো স্বাস্থ্যকর জায়গা নয়, যেখানে আপনি স্বচ্ছতা খুঁজতে পারেন।"

অভিনেতা জন ভয়টের মেয়ে জোলি বলেন, যেহেতু হলিউডের আশেপাশে বেড়ে উঠেছেন, কখনোই এসবে তিনি প্রভাবিত হননি। হলিউডকে বাড়াবাড়িরকম গুরুত্বপূর্ণ করে তোলেননি।

বাস্তবতা যদি সেরকমই হয়, এখন সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ থাকলে অভিনয় বেছে নিতেন জোলি?

জবাবে নায়িকা বলেন, “হয়ত অভিনয় করতাম না আমি। অভিনয় করলেও থিয়েটারে করতাম, হলিউডে নয়।”

২০০৪ সালে ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ’ সিনেমার শ্যুটিং চলাকালে জোলি ও পিটের প্রেম হয়। প্রায় এক দশক প্রেমের পর ২০১৪ সালে গাটছড়া বাঁধেন তারা।

দুবছর সংসার করার পর ২০১৬ সালে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন দুই তারকা। তারপর আইনি লড়াই চালিয়ে ছয় সন্তানকে নিজের কাছে পান জোলি।

পিটের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর বেশিরভাগ সময় সন্তানদের নিয়ে বাড়িতেই থাকতেন জোলি। তিনি জানান, সেসময় ‘স্বাধীনভাবে বাঁচার এবং ঘুরে বেড়ানোর ক্ষমতা’ হারিয়ে ফেলেছিলেন।

তার ভাষায়, ডিভোর্সের কারণেই এসব সহ্য করতে হত। কারণ সেসময় সবাই তাদের ব্যক্তিগত বিষয়ে জানার জন্য মুখিয়ে থাকত।

জোলি বলেন, একসময় বাধ্য হয়েই লস অ্যাঞ্জেলেস ছেড়ে কম্বোডিয়ার বাড়িতে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।