অভিনেতা রুবেলকে উৎসর্গ করে দেখানো হলো ‘পেয়ারার সুবাস’

নাসির উদ্দিন ইউসুফ, তারিক আনাম খান, জয়া আহসান, শাহরিয়ার শাকিল ও রেদওয়ান রনি উপস্থিত দর্শকের কাছে জানতে চান, তারা সিনেমা দেখতে চান কি না। দর্শকরা তখন জানান, সিনেমার মধ্যে দিয়ে শিল্পী রুবেলকে তারা শ্রদ্ধা নিবেদন করতে চান।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Feb 2024, 05:24 AM
Updated : 8 Feb 2024, 05:24 AM

প্রয়াত অভিনেতা আহমেদ রুবেলকে শ্রদ্ধা জানিয়ে তাকে উৎসর্গ করেই হল 'পেয়ারার সুবাস' সিনেমার প্রিমিয়ার শো। রুবেল এই সিনেমার অন্যতম অভিনেতা। 

বুধবার প্রিমিয়ারে আসার পথেই অসুস্থ হয়ে পড়েন রুবেল। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিনেমার প্রিমিয়ার অনুষ্ঠানে অভিনেতা তারিক আনাম খান বলেন, “একজন শিল্পী বেঁচে থাকেন তার কাজ দিয়ে। রুবেলও তার কাজ দিয়েই আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবেন। আজ যদি আমিও মারা যেতাম, তাইলে সিনেমাটা প্রদর্শিত হলেই আমি খুশি হতাম।”

বুধবার ঘড়ির কাঁটায় সময় তখন বিকেল সাড়ে ৫টা। অতিথিরাও ততক্ষণে আসতে শুরু করেছেন বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সে। উপলক্ষটা হচ্ছে ‘পেয়ারার সুবাস’-এর প্রিমিয়ার শো।

ঠিক সেই মুহূর্তে ঘটল সেই অপ্রত্যাশিত ঘটনা। জানা গেলো, ‘পেয়ারা সুবাস’-সিনেমার অন্যতম মূল চরিত্রের অভিনেতা আহমেদ রুবেল আর নেই। এ খবরে সবাই বাকরুদ্ধ!

সিনেমার পূর্ব নির্ধারিত প্রিমিয়ারে আসতে উত্তরা থেকে পরিচালক নূরুল আলম আতিক ও আহমেদ রুবেল গাড়িতে করে বসুন্ধরা সিটি আসছিলেন। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন আহমেদ রুবেল নিজেই। 

শপিং মলে গাড়িটি পার্ক করার পর হঠাৎ অসুস্থ বোধ করেন রুবেল। পরিচালক আতিক পার্কিং থেকে ফোন করে সিনেপ্লেক্সে থাকা টিমের কয়েকজনকে দ্রুত নিচে নামতে বলেন। সবাই মিলে আহমেদ রুবেলকে দ্রুত রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নেন তারা।

পথেই নিস্তেজ হয়ে পড়েন রুবেল। হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিনেপ্লেক্সে ততক্ষণে শোকের ছায়া। দেশের নন্দিত সব অভিনেতা, লেখক, শিক্ষক, পরিচালক, সাংবাদিক সকলেই উপস্থিত সেখানে। সকলের মধ্যে দ্বিধা, প্রিমিয়ার আর হবে কি না।

পরিচালক নূরুল আলম আতিক হাসপাতাল থেকে খবর দিলেন, সিনেমা যেন দেখানো হয়। রুবেলকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে এই সিনেমার মধ্যে দিয়ে।

নাসির উদ্দিন ইউসুফ, তারিক আনাম খান, জয়া আহসান, শাহরিয়ার শাকিল ও রেদওয়ান রনি উপস্থিত দর্শকের কাছে জানতে চান, তারা সিনেমা দেখতে চান কি না। দর্শকরা তখন জানান, সিনেমার মধ্যে দিয়ে শিল্পী রুবেলকে তারা শ্রদ্ধা নিবেদন করতে চান। 

প্রথমে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন উপস্থিত সকলে। তারপর সবার মতামত নিয়ে প্রদর্শিত হয় ‘পেয়ারার সুবাস’। অভিনেতা রুবেলকে উৎসর্গ করা হয় ‘পেয়ারার সুবাস’ সিনেমাটি।

নাসির উদ্দিন ইউসুফ বলেন, “রুবেল সিনেমার কাজ করতে করতেই চলে গেল আমাদের ছেড়ে। আমাদের জন্য ব্যাপারটা মেনে নেওয়া কঠিন। তার এই অসময়ের প্রস্থান আমাদেরকে শূন্য করে দিল।”

শুক্রবার থেকে দেশের ২৭টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ‘পেয়ারার সুবাস’। নূরুল আলম আতিক পরিচালিত এ সিনেমায় অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, তারেক আনাম খান, আহমেদ রুবেল, সুষমা সরকার, দিহান, নূর ইমরান মিঠুসহ অনেকে।  

৯২ মিনিটের সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে আলফা-আই স্টুডিওজ লি ও সহ-প্রযোজনায় চরকি।

এক নজরে আহমেদ রুবেল

১৯৬৮ সালের ৩ মে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের রাজারামপুর গ্রামে জন্ম নেওয়া আহমেদ রুবেল বেড়ে উঠেছেন ঢাকায়। অভিনয়ের সঙ্গে তার সখ্য মঞ্চ দিয়ে।

সেলিম আল দীনের 'ঢাকা থিয়েটারে' যোগ দেওয়ার পর ‘হাতহদাই’ নাটকে প্রথম অভিনয় করেন রুবেল। তাকে প্রথম টিভি নাটকে পাওয়া যায় একুশে টেলিভিশনের পর্দায় গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘স্বপ্নযাত্রা’য়। তারপর হুমায়ূন আহমেদের ঈদনাটক 'পোকা'য় অভিনয় করেন রুবেল, তৈরি হয় তার আলাদা ধরনের জনপ্রিয়তা।

হুমায়ূন আহমেদের ‘অতিথি', 'নীল তোয়ালে', 'বিশেষ ঘোষণা', 'সবাই গেছে বনে', ' বৃক্ষমানব', 'যমুনার জল দেখতে কালো' নাটকে রুবেলের অভিনয় প্রশংসিত হয়। মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা ধারাবাহিক 'প্রেত' নাটকটি রুবেলকে দেয় অন্যরকম জনপ্রিয়তা।

এক পর্বের এবং ধারাবাহিক নাটকের মধ্যে  'বারোটা বাজার আগে', 'প্রতিদান', 'নবাব গুন্ডা',  'এফএনএফ', 'একান্নবর্তী', 'রঙের মানুষ, 'পাথর', 'অতল', 'চেয়ার', 'স্বর্ণকলস', 'আয়েশার ইতিকথা', 'দূরের বাড়ি কাছের মানুষ', সৈয়দ বাড়ির বউ'সহ আরও অনেক নাটকে অভিনয় করেছেন রুবেল।

চলচ্চিত্রে রুবেলের যাত্রা শুরু ১৯৯৪ সালে, বাণিজ্যিক ধারার 'আখেরি হামলা' সিনেমা দিয়ে। এ পর্যন্ত 'আজকের ফায়সালা', 'মুক্তির সংগ্রাম', 'রঙিন রংবাজ', 'কে অপরাধী', 'সাবাস বাঙালি', 'মেঘলা আকাশ', 'পৌষ মাসের পিরিত'সহ  ১৯টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন রুবেল।

তবে চলচ্চিত্রে রুবেলকে জনপ্রিয়তা ও পুরস্কার এনে দিয়েছে হুমায়ূনের 'চন্দ্রকথা', 'শ্যামল ছায়া'।

এছাড়া 'ব্যাচেলর', মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা 'গেরিলা', 'দ্য লাস্ট ঠাকুর', 'অলাতচক্র', 'লাল মোরগের ঝুঁটি' ও রুবেলের মুক্তি পাওয়া সর্বশেষ সিনেমা 'চিরঞ্জীব মুজিব' তাকে একজন দারুণ অভিনেতা হিসেবে বারবার তুলে ধরেছে।

কলকাতার সিনেমাতেও রুবেল কাজ করেছেন। ২০১৪ সালে ভারতের নির্মাতা সঞ্জয় নাগ পরিচালিত 'পারাপার' এ প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

রুবেল সরব হয়েছিলেন হালের ওটিটিতেও। সত্যজিৎ রায়ের কালজয়ী গোয়েন্দা চরিত্র 'ফেলুদা' হিসেবেও তাকে পাওয়া গেছে। 'নয়ন রহস্য' উপন্যাস অবলম্বনে তৌকির আহমেদ পরিচালিত ওয়েব সিনেমায় 'ফেলুদা' হয়েছিলেন রুবেল। এছাড়া 'কাইজার' সিরিজেও তাকে দেখা যায়।

এসব সিনেমার মধ্যে রুবেল 'চিরঞ্জীব মুজিব'কে বিশেষ বলে তুলে ধরেছিলেন। ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর মুক্তি পায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' অবলম্বনে নির্মিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'চিরঞ্জীব মুজিব'।

এ সিনেমায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করেন রুবেল। গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রুবেল বলেছিলেন, বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠার কাজটি ছিল তার কাছে দুঃসাধ্য। তবুও বঙ্গবন্ধুর কথা বলার ধরন, হাঁটাচলা, সিগারেট ধরানোর স্টাইলসহ সবকিছু অনুকরণ করে ঐতিহাসিক এ চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে আপ্রাণ চেষ্টা করেন তিনি।

শেষ কাজ 'পেয়ারার সুবাস' নিয়ে দারুণ আশাবাদী ছিলেন রুবেল। শুক্রবার মুক্তি পেতে চলা এই সিনেমাটির ট্রেইলার প্রকাশ হয়েছে গত মঙ্গলবার।

সিনেমার শুটিং শুরু হয়েছিল ২০১৬ সালে। কাজ শুরুর পর দফায় দফায় বিরতি দিয়ে সেই শুটিং শেষ হয় কোভিড মহামারীর মধ্যে ২০২০ সালের শেষ দিকে। এরপর বাদবাকি কাজ সারতে লেগে যায় আরো তিন বছর।

আহমেদ রুবেলের মরদেহ বৃহস্পতিবার সকালে নেওয়া হবে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সেখানে সর্বস্তরের মানুষ তাকে শ্রদ্ধা জানাবেন।

এরপর গাজীপুরে নিয়ে যাওয়া হবে কফিন, সেখানেই বাদ আছর দাফন হবে এ অভিনেতার।