‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’ অশ্লীল সিনেমা: গোয়া উৎসবের জুরি প্রধান  

ইসরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিদের মতে, ঐতিহ্যবাহী কোনো চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেওয়ার উপযুক্ত নয় বিবেক অগ্নিহোত্রীর ওই সিনেমা।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2022, 07:28 AM
Updated : 29 Nov 2022, 07:28 AM

গোয়ায় ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল অব ইনডিয়ার (আইএফএফআই) সমাপনী দিনে বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত সিনেমা ‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’ নিয়ে জুরি বোর্ড প্রধানের তীব্র সমালোচনায় নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে ভারতে।

এ উৎসবের জুরি বোর্ডের প্রধান ইসরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিদ সোমবার মঞ্চে দাঁড়িয়ে বলেন, এবার প্রতিযোগিতা বিভাগে জমা পড়া ১৫টি সিনেমার মধ্যে পঞ্চদশ সিনেমাটি দেখে বোর্ডের সবাই বিরক্ত হয়েছেন। আর সেটা ‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’।

“আমাদের মনে হয়েছে এটা একটা প্রপাগান্ডা, অশ্লীল সিনেমা। এরকম ঐতিহ্যবাহী একটি চলচ্চিত্র উৎসবের শৈল্পিক ও প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে আসার উপযুক্ত নয়।”

নব্বইয়ের দশকে হিন্দুদের গণহারে কাশ্মির ছাড়ার ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’ভারতে মুক্তি পায় গত মার্চে। তারপর থেকেই এ সিনেমা ঘিরে চলছে নানামুখি বিতর্ক।

চলচ্চিত্রটি ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও তার ডানপন্থি হিন্দু জাতীয়তাবাদী অনুসারীদের কাছে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হওয়ার পাশাপাশি ব্যবসায়িকভাবেও সফল হয়েছে।

তবে সমালোচকদের ভাষ্য, চলচ্চিত্রটিতে বাস্তব ঘটনা বিকৃতভাবে উপস্থাপিত হয়েছে এবং এটি মুসলিমবিদ্বেষী মনোভাব উসকে দিচ্ছে। একই যুক্তিতে গত মে মাসে সিঙ্গাপুরে সিনেমাটি নিষিদ্ধ করা হয়।

সেই কাশ্মির ফাইলস এবার ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অফ ইন্ডিয়ার সর্বোচ্চ পুরস্কার গোল্ডেন পিককের জন্য জমা পড়ে। উৎসবে সিনেমাটি যেদিন দেখানো হল, অভিনেতা অনুপম খের ও পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীও সে সময় উপস্থিত ছিলেন।

হিন্দুস্থান টাইমস লিখেছে, উৎসবের শেষ দিন ভারতের কেন্দ্রীয় সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর এবং প্রতিমন্ত্রী এল মুরুগানের উপস্থিতিতেই ‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’ নিয়ে সমালোচনা করেন জুরি প্রধান নাদাভ লাপিদ।

কান চলচ্চিত্র উৎসবে সেরার পুরস্কার জয়ী এই ইসরায়েলি পরিচালক বলেন, “আমি এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে আপনাদের সবার সামনেই নির্দ্বিধায় কথাটা বলছি। শিল্প এবং জীবনবোধের জন্য সমালোচনাকে গ্রহণ করতে পারাটাও এ ধরনের উৎসবের চেতনার অংশ।” 

লাপিদের ওই বক্তব্য নিয়ে এখন ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে তুলকালাম চলছে। আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি বোর্ড এক বিবৃতিতে বলেছে, লাপিদ যা বলেছেন, তা একেবারেই তার ব্যক্তিগত মতামত।

ভারতে ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত নায়োর গিলনও যোগ দিয়েছেন এই আলোচনায়। টুইট করে তিনি লাপিদের পাল্টা সমালোচনা করে বলেছেন, “আমি আপনাকে পরামর্শ দেব, স্বাধীনভাবে ইসরায়েলের সমালোচনা করুন। কিন্তু নিজের হতাশা অন্য দেশের উপরে ঢালবেন না।

“আপনি হয়ত ভাবছেন, খুব সাবসী মন্তব্য করে দেশে ফিরছেন। কিন্তু আমরা যারা ইসরায়েলের প্রতিনিধি হিসেবে ভারতে থাকব, তাদের ওপর এর প্রভাব পড়বে।”

ভারত শাসিত কাশ্মীরে ১৯৮৯ সালে দিল্লির শাসনের বিরুদ্ধে সহিংস বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে হাজার হাজার মানুষ, যাদের অধিকাংশই হিন্দু হিমালয়ের এ উপত্যকাটি ছেড়ে পালায়।

হিন্দি ভাষায় নির্মিত ১৭০ মিনিটের চলচ্চিত্র ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’এর সমর্থকরা বলছেন, চলচ্চিত্রটি কাশ্মীরের ইতিহাসের এমন এক অধ্যায়ের উপর আলো ফেলেছে, যা প্রায়ই উপেক্ষিত থাকে।

তাদের বাইরে অন্যরা এই চলচ্চিত্রকে দেখছেন ভারতে ক্রমবর্ধমান ধর্মীয় মেরুকরণের প্রমাণ হিসেবে, ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই যে মেরুকরণকে নরেন্দ্র মোদী সযত্নে লালন-পালন করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ সমালোচকদের।

Also Read: মোদীর প্রশংসা পাওয়া ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ সিঙ্গাপুরে নিষিদ্ধ

Also Read: বিভেদের চিত্র প্রকাশ্যে আনছে ‘দ্য কাশ্মির ফাইলস’

Also Read: ’দ্য কাশ্মির ফাইলস’ নির্মাতার নতুন সিনেমা 'দ্য ভ্যাকসিন ওয়ার'

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক