এবার স্পট মার্কেট থেকে ৯.৮৪ ডলারে এলএনজি কিনছে সরকার

প্রতি এমএমবিটিইউ ৯ দশমিক ৮৪ ডলারে হিসাবে তিন কার্গো গ্যাসের দাম পড়বে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ হাজার ২৭৪ কোটি ১২ লাখ টাকা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2024, 12:17 PM
Updated : 7 Feb 2024, 12:17 PM

দ্রুত আমদানি করে দেশে চলমান গ্যাস সংকট মোকাবিলায় স্পট মার্কেট থেকে সিঙ্গাপুরের দুই প্রতিষ্ঠান থেকে তিন কার্গো তরলীকৃত গ্যাস বা এলএনজি কিনছে সরকার। 

আগের চেয়ে কিছুটা কম মূল্যে প্রতি এমএমবিটিইউ ৯ দশমিক ৮৪ ডলারে হিসাবে তিন কার্গো গ্যাসের দাম পড়বে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ হাজার ২৭৪ কোটি ১২ লাখ টাকা। 

বুধবার অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এলএনজি কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান। 

বাংলাদেশ সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠক হয়। 

পরে ব্রিফিংয়ে এসে সাঈদ মাহবুব খান বলেন, বৈঠকে মোট ৭টি প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে। 

এরমধ্যে তিনটি প্রস্তাবের মাধ্যমে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের প্রস্তাব অনুযায়ী সিঙ্গাপুরের দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে মোট তিন কার্গো এলএনজি কেনা হবে। 

এর একটি- ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি (বিশেষ বিধান) আইন ২০১০- এর (সংশোধনী ২০২১)’ এর আওতায় মাস্টার সেল অ্যান্ড পার্চেজ অ্যাগ্রিমেন্ট (এমএসপিএ) স্বাক্ষর করা প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্য থেকে কোটেশন সংগ্রহ প্রক্রিয়ায় স্পট মার্কেট থেকে এক কার্গো এলএনজি আমদানি করা হবে। 

অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান বলেন, সিঙ্গাপুরের ‘এম এস গুলবার সিঙ্গাপুর প্রাইভেট লিমিটেড’ এর কাছ থেকে প্রতি এমএমবিটিইউ ৯ দশমিক ৮৪ ডলার হিসাবে এক কার্গো এলএনজির দাম পড়বে প্রায় ৪২৫ কোটি ৮১ লাখ ৫৮ হাজার টাকা। 

এর আগে কেনা প্রতি এমএমবিটিইউ এলএনজির দাম ছিল ৯ দশমিক ৯৩ ডলার।

সাঈদ মাহবুব জানান, সিঙ্গাপুরের একই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে মোট দুই কার্গো এলএনজি কেনা হবে। অর্থাৎ একই দামে দুই কার্গো এলএনজি কিনতে ব্যয় হবে ৮৫১ কোটি ৬৩ লাখ ১৫ হাজার ৮০৮ টাকা। 

অতিরিক্ত সচিব বলেন, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের একই প্রক্রিয়া সিঙ্গাপুরের আরেকটি প্রতিষ্ঠান ‘এম এস ভিটল এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেড’ থেকে এক কার্গো এলএনজি কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। 

এই এক কার্গো এলএনজির দাম পড়বে প্রতি এমএমবিটিইউ ৯ দশমিক ৭৭ ডলার। এক কার্গো গ্যাসের দাম পড়বে ৪২২ কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার ৬৪০ টাকা। 

তিনি বলেন, এই তিন প্রস্তাবের তিন কার্গো এলএনজি কিনতে মোট ব্যয় হচ্ছ এক হাজার ২৭৪ কোটি ১১ লাখ ৭৬ হাজার ৫২০ টাকা। 

এর আগে গত ৩১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠান ‘মেসার্স ভিটল এশিয়া পিটিই লিমিটেড’ থেকে এক কার্গো এলএনজি ৪২৯ কোটি ৪০ লাখ ৫০ হাজার টাকায় কেনার প্রস্তাব অনুমোদন পেয়েছিল। 

এর আগে ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে ২২ জানুয়ারি সুইজারল্যান্ডভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘টোটাল এনার্জিস গ্যাস অ্যান্ড পাওয়ার লিমিটেডের কাছ থেকে এক কার্গো এলএনজি কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। 

প্রতি এমএমবিটিইউ ১০ দশমিক ৮৮ ডলার হিসাবে ওই কার্গোটি আমদানিতে মোট ব্যয় ধরা হয়েছিল ৪৭০ কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জানান, বৈঠকে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ‘শ্রীকাইল গ্যাস ক্ষেত্রের জন্য ওয়েলহেড কম্প্রেসর সংগ্রহ ও স্থাপন (১ম সংশোধিত)‘ শীর্ষক প্রকল্পে ওয়েলহেড কম্প্রেসর স্থাপনের লক্ষ্যে টার্ন-কি ভিত্তিতে ইপিসি নিয়োগের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বাপেক্সের অধীনে বাস্তবায়নাধীন এই প্রকল্পটির এই কর্যক্রম পরিচালনার জন্য রোমানিয়ার এসসি ইউরো গ্যাস সিস্টেমকে এই কাজ দেওয়া হবে ১৭৮ কোটি ২৫ লাখ টাকায়।