চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দিন আর নেই

লালদীঘি ময়দানে শেখ হাসিনাকে বহনকারী গাড়ি বহরে গুলিবর্ষণের ঘটনায় হওয়া মামলার সাক্ষী ছিলেন তিনি।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Jan 2023, 02:33 PM
Updated : 20 Jan 2023, 02:33 PM

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কামাল উদ্দিন আহমদ মারা গেছেন।

শুক্রবার বিকালে নগরীর আসকার দিঘীর পাড় এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ আইনজীবী মারা যান। 

সাবেক বিভাগীয় স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর কামাল উদ্দিন আহমদ (৮১) পাঁচ কন্যার জনক।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ নেতা বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “শনিবার সকাল ৯টায় সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মরহুমের মরদেহ উনার দীর্ঘদিনের কর্মস্থল চট্টগ্রাম আদালত প্রাঙ্গণে রাখা হবে।

“পরে সকাল ১০টায় হযরত মিসকিন শাহ মাজার সংলগ্ন মাঠে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার নিজগ্রাম ফটিকছড়ি ধর্মপুর গ্রামের আজাদী বাজার মুন্দার বাড়িতে। দুপুরে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।”

১৯৪২ সালে জন্ম গ্রহণকারী কামাল উদ্দিন আহমদ স্কুল জীবনেই ১৯৫৪ সালে রাজনীতিতে জড়িয়ে পরেন। ১৯৬২ সালে হামুদর রহমান শিক্ষানীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে অংশ নিয়ে কারাবরণ করেন।

১৯৬৬ সালে ঐতিহাসিক ছয়দফা এবং ১৯৬৯ সালের গণ অভ্যুত্থানে তিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ফটিকছড়ির এলাকায় একজন সংগঠকের ভূমিকা পালন করেন।

মুক্তিযুদ্ধের পর ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় শালিসী আদালতের চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেন কামাল উদ্দিন আহমদ। স্বাধীনতার পর রাজাকারদের বিরুদ্ধে হওয়া কোলাবরেটর মামলার স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর ও অ্যাসিসট্যান্ট পাবলিক প্রসিকিউটরের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামের লালদীঘি ময়দানে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে বহনকারী গাড়ি বহরে গুলিবর্ষণের ঘটনায় হওয়া হত্যা মামলার অন্যতম সাক্ষী ছিলেন কামাল উদ্দিন।

এছাড়া ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি বিভাগীয় স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছিলেন কামাল উদ্দিন আহমদ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক