পটিয়ার ওসি নিয়ে ‘শঙ্কা’: বদলির আবেদন আওয়ামী লীগ প্রার্থীর

ওসির বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ এনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে চিঠি দিয়েছেন চট্টগ্রাম-১২ আসনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Dec 2023, 03:03 PM
Updated : 7 Dec 2023, 03:03 PM

চট্টগ্রামের পটিয়া থানার ওসিকে দিয়ে ‘পক্ষপাতহীন নির্বাচন সম্ভব নয়’ দাবি করে তাকে বদলি করতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের কাছে আবেদন করেছেন চট্টগ্রাম-১২ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে এই আবেদনে তিনি বলেন, “বর্তমান ওসি নেজাম উদ্দিনকে দিয়ে অবাধ, সুষ্ঠু এবং পক্ষপাতহীন নির্বাচন সম্ভব নয়। আমি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের স্বার্থে ওসি নেজাম উদ্দিনকে অন্যত্র বদলির আবেদন করছি।”

মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে আবেদন করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এই আসনটির বর্তমান সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরীকে মনোনয়ন না দিয়ে প্রার্থী পাল্টেছে ক্ষমতাসীন দল। তবে দলের সিদ্ধান্ত মেনে না নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন তিনি।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে সম্প্রতি পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদ ছেড়েছেন।

ওসিকে বদলি করার আবেদনে তিনি লেখেন, “তিনি (সামশুল) আগামী সংসদ নির্বাচনে নির্বাচনী বৈতরণী পার হওয়ার জন্য হুইপের ক্ষমতায় গত ১২ নভেম্বর নিজের পছন্দের ওসিকে বদলি করে আনেন।”

ওসি নেজাম ‍উদ্দিনের নানা শ্বশুরের বাড়ি পটিয়ার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে এবং তিনি হুইপের দূর সম্পর্কের আত্মীয় বলেও উল্লেখ করা হয় আবেদনে।

মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকে ওসি নেজাম উদ্দিন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের হুমকি ধমকি দিয়ে আসছেন উল্লেখ করে মোতাহেরুল লেখেন, “গত ৫ ডিসেম্বর মাননীয় হুইপ নির্বাচনি আচরণবিধি সংক্রান্ত বিষয়ে পটিয়া আদালতে সশরীরে হাজিরা দিতে আসার পথে পটিয়ার প্রায় প্রতিটি এলাকায় পুলিশ প্রটেকশনের ব্যবস্থা করেন ওসি।

“হুইপ সাহেব আদালতে হাজিরা শেষে গ্রামের বাড়ি শোভনদণ্ডীর রশিদাবাদে গেলে ওসি নেজাম উদ্দিনও ছুটে যান। সেখানে তার সঙ্গে গোপন বৈঠক করেন।”

নৌকা পেতে যাওয়া নেতা বলেন, “ওসি নেজাম উদ্দিনের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে বুঝতে পারলাম, এই ওসি স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর নির্বাচনি এজেন্ডা বাস্তবায়ন করবেন।”

কী বলছেন ওসি

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি নেজাম উদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা এখন নির্বাচন কমিশনের অধীনে। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা ব্যতীত কোনো কাজ করার সুযোগ আমাদের নেই।

“কোনো কাজে যদি কেউ মনে করেন যে তা বিধিসম্মত হয়নি তাহলে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে অভিযোগ করতে পারেন।”

হুইপ সামশুল হক চৌধুরী বদলি করিয়ে এনেছেন কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, “পটিয়া আসার আগে উনার সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। পুলিশের বদলি হয় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে।”

হুইপের সঙ্গে দূর সম্পর্কের আত্মীয়তার যে প্রসঙ্গ আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, সে বিষয়ে ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, “আমার নানা শ্বশুর বহু বছর আগে মারা গেছেন। তাদের গ্রামের বাড়িতে কেউ থাকেন না।”

এ বিষয়ে সামশুল হক চৌধুরীর বক্তব্য জানতে তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে যোগাাযোগ করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।