গয়না ব্যবসায়ী খুন: চট্টগ্রামে দোকান বন্ধ রেখে বিচার দাবি সহকর্মীদের

রোববার চট্টগ্রামে আধাবেলা দোকান বন্ধ রেখে প্রতিবাদ জানায় বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Sept 2022, 11:15 AM
Updated : 11 Sept 2022, 11:15 AM

চট্টগ্রামের পটিয়ায় গয়না ব্যবসায়ী বিমান ধরের খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন তারা সহকর্মীরা।

বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি (বাজুস) রোববার চট্টগ্রামে আধাবেলা দোকান বন্ধ রেখে বিমান ধর হত্যার প্রতিবাদ জানায়। এ সময় তারা নগরীর প্রেস ক্লাব চত্বরে মানববন্ধন ও মিছিল করেন।

হত্যাকাণ্ডের পাঁচ দিনেও পুলিশ কোনো সুরাহা না করতে পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সমিতির নেতারা। পুলিশ বলছে, কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হলেও কাউকে আটক করা হয়নি।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পটিয়া সার্কেল) তারেকুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বিমান ধরকে খুন করা হলেও তার কাছ থেকে কোনো মালামাল নিয়ে যায়নি। লাশের পাশেই মোটরসাইকেল পড়ে ছিল।

“হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।… শুধু জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের ডাকা হয়েছিল। বেশ কিছু তথ্য আমরা পেয়েছি। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যার কারণটা জানা যাবে।

গত ৬ সেপ্টেম্বর পটিয়া উপজেলার জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের লড়িকড়া এলাকায় গয়না ব্যবসায়ী বিমান ধরের (৪০) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে তার ভাই পটিয়া থানায় অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করেন।

লাশ উদ্ধারের পর পটিয়া থানার পরির্দশক (তদন্ত) রাশেদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছিলেন, দোকান বন্ধ করে মঙ্গলবার পটিয়ার ধলঘাটে নিজের বাড়ি যাওয়ার পথে সাড়ে ১১টার দিকে বিমানের ওপর হামলা হয়।

“স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

স্থানীয়রা জানায়, নগরীর বাকলিয়া রাহাত্তার পুল এলাকায় বিমানের গয়নার দোকান। প্রতিদিন দোকান শেষে তিনি ধলঘাটে নিজের বাড়ি ফেরেন। সেদিনও মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফেরার পথে তিনি আক্রান্ত হন।

বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতির (বাজুস) চট্টগ্রাম বিভাগের সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, হত্যাকাণ্ডের পর তারা প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

“পাঁচদিন পার হলেও কোনো দুস্কৃতকারী গ্রেপ্তার হয়নি। আমরা দাবি জানাচ্ছি, মামলাটি থানা পুলিশের কাছ থেকে সিআইডি কিংবা পিবিআইয়ের কাছে পাঠানোর জন্য, যাতে হত্যাকারীরা দ্রুত গ্রেপ্তার হয়।

পুরনো খবর

Also Read: চট্টগ্রামে গয়না ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক