বিপিএলে শেষ ম্যাচের আগে বাবরের কণ্ঠে সাকিব-সোহানদের প্রশংসা

নতুন করে কোনো অনুমতি না পেলে মঙ্গলবার এবারের বিপিএলে শেষ ম্যাচটি খেলবেন বাবর আজম।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2024, 12:27 PM
Updated : 5 Feb 2024, 12:27 PM

‘রংপুরের সঙ্গে আগেই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলাম’- আইএলটি-টোয়েন্টির বদলে বিপিএলকে বেছে নেওয়ার কারণ জানিয়ে বললেন বাবর আজম। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর রাইডার্সে যোগ দেওয়া বিশ্ব তারকা এখন নিজ দেশে ফেরার অপেক্ষায়। শেষ প্রহরে এসে বিপিএল খেলার অভিজ্ঞতা জানালেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক। 

এ নিয়ে দ্বিতীয়বার বিপিএল খেলতে এসেছেন বাবর। ২০১৭ আসরে খেলেছিলেন প্রথমবার। সেবার প্রত্যাশা পুরোপুরি পূরণ করতে পারেননি তিনি। সিলেট সিক্সার্সের হয়ে পাঁচ ম্যাচের চার ইনিংসে তার রান ছিল ৫ বলে ২, ৩২ বলে ৪১, ৩৭ বলে ৫৪ ও ১৯ বলে ২০।

এবার বদলেছে ওই চিত্র। পাকিস্তানের হয়ে এই সংস্করণে দারুণ ছন্দে থাকা অবস্থায় বিপিএলে এসে প্রথম ম্যাচে করেছেন অপরাজিত ফিফটি। এক ম্যাচ পর খেলেছেন আরেকটি পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস। ৩০ পেরিয়েছেন পরের দুই ম্যাচেও। 

সব মিলিয়ে পাঁচ ম্যাচে ৫১ গড় ও ১১৫.৯০ স্ট্রাইক রেটে তার সংগ্রহ ২০৪ রান। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত বাবরের চেয়ে বেশি রান শুধু মুশফিকুর রহিমের। ছয় ম্যাচে ফরচুন বরিশালের অভিজ্ঞ কিপার-ব্যাটসম্যান করেছেন ২২৯ রান।

তবে তার সময় শেষ হওয়ার পথে। নতুন করে পিসিবির অনুমতি না পেলে মঙ্গলবার দুর্দান্ত ঢাকার বিপক্ষে চলতি বিপিএলে নিজের শেষ ম্যাচ খেলবেন বাবর। ম্যাচের আগের দিন বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্সে অনুশীলনের পর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এবারের বিপিএলের অভিজ্ঞতা জানান তিনি।

“অভিজ্ঞতা এখন পর্যন্ত খুব ভালো। আমি পাঁচ ম্যাচ খেলেছি। দলের সবাই যেভাবে পারফর্ম করেছে, কৃতিত্ব তাদের। তিন বিভাগেই আমরা পরিশ্রম করছি। টুর্নামেন্টের বাকি অংশে দলের জন্য শুভ কামনা।”

“রংপুরের সঙ্গে সামনেও খেলতে মুখিয়ে আমি। তবে বিভিন্ন সময় আমাদের আন্তর্জাতিক খেলা থাকে। যে কারণে এখানে ধারাবাহিকভাবে আসা হয় না। কারণ এই সময় অনেক আন্তর্জাতিক সিরিজ হয়। না হলে আমি পরের বছরও খেলার ব্যাপারে আগ্রহী।”

টুর্নামেন্টে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার আগে বাবর বলেছিলেন, সাকিব আল হাসানের সঙ্গে খেলতে মুখিয়ে আছেন তিনি। চোখের সমস্যার কারণে ওই ম্যাচে ছিলেন না সাকিব। পরের চার ম্যাচে একসঙ্গেই খেলেছেন বাবর ও সাকিব।

প্রতিপক্ষ হিসেবে অনেকবারই সাকিবের মোকাবিলা করেছেন বাবর। গত বছরের পিএসএলে পেশোয়ার জালমির হয়ে এক ম্যাচ একসঙ্গে খেলেছেন দুজন। এবার বিপিএলে আরও কয়েক ম্যাচে সাকিবকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ পেয়েছেন বাবর। 

একসঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতায় বিপিএল ছাড়ার আগে সাকিবের স্তুতিই শোনা গেল পাকিস্তানি তারকার কণ্ঠে।

“সাকিব ভাই আমার সিনিয়র। আমার মনে হয়, রংপুর রাইডার্স এবং তরুণদের জন্য সম্মানের বিষয় যে, সাকিব তাদের দলে আছে। তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা ছেলেদের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন। ম্যাচের সময়ও তিনি এটা করেন; যা খুবই ভালো ব্যাপার। ড্রেসিংরুমে সবসময় ইতিবাচক এবং হাস্যোজ্জ্বল থাকেন।”

বাবর, সাকিব বা মোহাম্মদ নাবিদের মতো তারকাখচিত রংপুর দলের অধিনায়কত্ব করছেন নুরুল হাসান সোহান। প্রথম তিন ম্যাচে দুটিতে হারলেও টানা তিন জয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে সোহানের নেতৃত্বাধীন দল।

উইকেটের পেছনে বরাবরই দারুণ সোহান। ব্যাট হাতেও এবার কার্যকর অবদান রাখছেন তিনি। সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে সবশেষ ম্যাচে খেলেছেন ৪৬ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস। 

মাঠে সবসময় চটপটে কিপার-ব্যাটসম্যান এবার অধিনায়কত্বেও রাখছেন আলাদা ছাপ। তার নেতৃত্ব মুগ্ধ করেছে বাবরকেও।

“(অধিনায়ক হিসেবে) সোহান ভালো। দায়িত্বের ব্যাপারে সে খুব স্বচ্ছ। মাঠে সে খুব ভালো ভালো সিদ্ধান্ত নেয়। যখন উইকেট প্রয়োজন হয়, সে মূল বোলারদের ব্যবহার করে। ক্রিকেটার ও অধিনায়ক হিসেবে আপনার স্বচ্ছতা থাকতে হবে। সেদিক থেকে সে খুব স্বচ্ছ। ম্যানেজমেন্টকেও কৃতিত্ব দিতে হবে। তাকে পূর্ণ স্বচ্ছতা দেওয়া হয়েছে।”

নিজ দল, অধিনায়ক বা সাকিবদের ব্যাপারে প্রশংসা করলেও বিপিএলের এক দিক নিয়ে আঙুল তোলার অবকাশ তিনি পেলেন। টুর্নামেন্টের মান আরও বাড়াতে উইকেটের উন্নতিতে নজর দেওয়ার পরামর্শ দিলেন তিনি।

“(উইকেট) কিছুটা কঠিন। দিনে এক রকম, রাতে অন্যরকম আচরণ করে। ধারাবাহিকভাবে বাউন্স পাওয়া যায় না। আবার সবসময় ধারাবাহিক স্পিনও হয় না। মাঝে মাঝে মন্থর এবং নিচু হয়। আমার মতে, উইকেটের দিক থেকে বিপিএলের মান আরও বাড়াতে হবে। সব মিলিয়ে দলগুলো খুব ভালো।”

মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় খুলনার মুখোমুখি হবে বাবরের রংপুর।