রাসেলের শেষ ওভারে ২৫ রান নিয়ে জাদরান-ব্রাভোদের জয়

আইএল টি-টোয়েন্টিতে শেষ ওভারে ব্রাভোর ছক্কা-চার ও জাদরানের দুই ছক্কায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এমিরেটসের জয়।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Jan 2023, 04:44 AM
Updated : 22 Jan 2023, 04:44 AM

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আইএল টি-টোয়েন্টিতে একতরফা ম্যাচই বেশি হচ্ছিল। নতুন এই ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরের নবম দিনে ও একাদশ ম্যাচে দেখা গেল জমজমাট এক লড়াই। শেষ ওভারের রোমাঞ্চে নায়ক এখানে ডোয়াইন ব্রাভো ও নাজিবউল্লাহ জাদরান। আবু ধাবি নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে জয়ের জন্য শেষ ওভারে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের প্রয়োজন পড়ে ২০ রান। আন্দ্রে রাসেলের বোলিংয়ে ব্রাভোর ছক্কা-চার ও জাদরানের দুই ছক্কায় জিতে যায় এমিরেটস।

আবু ধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবার এই ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এমিরেটস জয় পায় ৫ উইকেটে।

ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার ৪০ বলে ৬৫ রানের ইনিংসের সঙ্গে চারিথ আসালাঙ্গার ১৭ বলে ২৩ আর শেষ দিকে অধিনায়ক সুনিল নারাইনের ১৮ বলে ২৮ রানের ইনিংসে আবু ধাবি তোলে ২০ ওভারে ১৭০ রান।

রান তাড়ায় এমিরেটসের হয়ে তিনে নেমে আন্দ্রে ফ্লেচার খেলেন ৪৩ বলে ৫৩ রানের ইনিংস। চারে নেমে নিকোলাস পুরান করেন ১৩ বলে ২০।

শেষ ৪ ওভারে তাদের প্রয়োজন পড়ে ৫৭ রানের। সপ্তদশ ওভারে ক্যারিবিয়ান বাঁহাতি স্পিনার আকিল হোসেনের বোলিংয়ে কাইরন পোলার্ড ও জাদরান মিলে নেন ১৫ রান। অধিনায়ক পোলার্ড পরে ১৯তম ওভারে আউট হয়ে যান ২৩ বলে ৩১ রান করে। নারাইনের ওই ওভারে পরে একটি ছক্কা মারেন জাদরান। শেষ পর্যন্ত সমীকরণ দাঁড়ায় ৬ বলে ২০ রানের।

শেষ ওভার শুরুর সময় ব্রাভো ব্যাট করছিলেন ২ বলে ২ রানে। জাদরানের রান ছিল ১৫ বলে ২৩। রাসেল বোলিং শুরু করেন রাউন্ড দা উইকেটে। প্রথম বলটি তিনি করেন ফুল লেংথ, অফ স্টাম্পের বাইরে। সেই ডেলিভারিতেই কবজির মোচড়ে দুর্দান্ত টাইমিংয়ে মিড উইকেটের ওপর দিয়ে উড়িয়ে দেন ব্রাভো।

পরের বলটি রাসেল করেন ইয়র্কার। ব্রাভোর ব্যাটের কানায় লেগে আসে দুই রান। তৃতীয় বলটি রাউন্ড দা উইকেটে আবার অফ স্টাম্পের বাইরে হাফ ভলি মতো করেন রাসেল। সোজা ব্যাটে চালিয়ে দেন ব্রাভো। লং অন দিয়ে চার। পরের বলে ইয়র্কারে ব্যাট পেতে দিয়ে ব্রাভো নেন সিঙ্গেল।

২ বলে তখন প্রয়োজন ৭ রান। জাদরান পঞ্চম বলে মেরে দেন বিশাল ছক্কা। শর্ট বল পেয়ে আফগান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান বল পাঠিয়ে দেন গ্যালারির প্রায় বাইরে। এরপর ১ বলে দরকার ১ রান। কিন্তু জাদরান ছিলেন খুনে চেহারায়। শেষ ডেলিভারিতে অফ স্টাম্পের বাইরের লেংথ বলে সামান্য জায়গা বানিয়ে আপার কাট করে আরেকটি ছক্কা মেরে উল্লাসে মেতে ওঠেন জাদরান।

১৭ বলে ৩৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা জাদরানই। ম্যাচ শেষে এই আফগান ব্যাটসম্যান বললেন, কঠিন সমীকরণেও জয়ের বিশ্বাস তার ছিল।

“শেষ ওভারে ২০ রান সহজ ছিল না। রাসেল তো অনেক অভিজ্ঞ বোলার। আমি ডিজেকে (ব্রাভো) বলেছিলাম, আমরা করে ফেলব। তবে প্রথম দুই বল খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই দুটিতে বাউন্ডারি মারতে পারলে পরের চার বলে ১০-১২ রান সহজেই করে ফেলতে পারব।”

“ডিজে দারুণ শুরু করল ওভারটিতে। শেষ দুই বলে যখন আমি স্ট্রাইক পেলাম, তাকে বললাম যে, ‘চিন্তার কিছু নেই, তুমি নন স্ট্রাইকে থাকো, আমি করে ফেলব।’ এই ধরনের পরিস্থিতিতে আমি বলের জন্য অপেক্ষা করি, ধীরস্থির থাকি এবং নিজের ওপর ভরসা রাখি। ভালো লাগছে যে পেরেছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক