ইসি কর্মকর্তাদের মধ্যে সংবাদমাধ্যমে কথা বলবেন কেবল সচিব

“নির্বাচন কমিশনারদের গণমাধ্যমে কথা বলা বা না বলার বিষয়টির সঙ্গে এর কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই,” বলছেন কমিশনার হাবিব।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Nov 2023, 04:14 PM
Updated : 5 Nov 2023, 04:14 PM

ভোট সামনে রেখে সংবাদমাধ্যমে কথা বলতে ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলমকে মুখপাত্র করে অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে।

রোববার এ সংক্রান্ত আদেশটি জারি করেছে নির্বাচন কমিশনের জনসংযোগ শাখা। 

এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেও এমন অফিস জারি করেছিল নির্বাচন কমিশন।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল নভেম্বরের প্রথমার্ধেই ঘোষণা করতে চায় সাংবিধানিক সংস্থাটি। আর ডিসেম্বরের শেষ থেকে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই নির্বাচন সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

Also Read: সিইসি-সচিব ছাড়া অন্যদের ব্রিফিংয়ে মানা

ইসির জনসংযোগ পরিচালক শরিফুল আলম স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে বলা হয়েছে, “নির্বাচন কমিশন (কার্যপ্রণালী) বিধিমালা, ২০১০ এর বিধি ১১ (৩) এর আলোকে কমিশনের মুখপাত্র হিসেবে গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদেরকে ব্রিফ প্রদানের জন্য নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিবকে কমিশন কর্তৃক মনোনীত করা হয়েছে।

“বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধি হিসেবে সচিব, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় গণমাধ্যমকে ব্রিফিং প্রদান করবেন এবং তিনি কমিশনের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।”

অফিস আদেশের অনুলিপি মন্ত্রিপরিষদ সচিব, সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সচিব, মহাপুলিশ পরিদর্শক, অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রধান, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের পাঠানো হয়েছে।

‘আদেশটি কমিশনারদের জন্য প্রযোজ্য নয়’ 

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খান বলেন, “নির্বাচন কমিশন (কার্যপ্রণালী) বিধিমালা ২০১০ এর বিধি ১১ (৩)-তে বলা আছে যে, ‘কমিশনের ক্ষমতাপ্রাপ্ত প্রতিনিধি হিসাবে সচিব গণমাধ্যমকে ব্রিফিং প্রদান করিবেন এবং কমিশন কর্তৃক এতদুদ্দেশ্যে ক্ষমতাপ্রাপ্ত না হইলে সচিব ব্যতীত অন্য কোন কর্মকর্তা গণমাধ্যমে কোন বক্তব্য রাখিতে পারিবেন না।’ 

“তাই জনসংযোগ শাখা থেকে নির্বাচন কমিশনের মুখপাত্র নির্ধারণ সংক্রান্ত যে আদেশটি জারি করা হয়েছে, সেটি নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের জন্য প্রযোজ্য হবে। নির্বাচন কমিশনারদের গণমাধ্যমে কথা বলা বা না বলার বিষয়টি এর সঙ্গে কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।”