জামায়াত আমিরের ছেলে গ্রেপ্তার

সিলেট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Nov 2022, 04:03 PM
Updated : 9 Nov 2022, 04:03 PM

জামায়াতে ইসলামীর আমির মো. শফিকুর রহমানের ছেলে রাফাত সাদিক সাইফুল্লাহকে গ্রেপ্তার করেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন সিটিটিসি কর্মকর্তারা।

বুধবার দুপুরে সিলেট থেকে গ্রেপ্তার করা হয় রাফাতকে। তাকে ঢাকায় আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সিটিটিসি প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান।

সম্প্রতি ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানা এলাকা থেকে আনসার আল ইসলামের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলাও হয়।

তারা হলেন- সেজাদুল ইসলাম সাহাব তানিম ওরফে ইসা ওরফে আরাফাত ওরফে আনোয়ার ওরফে আনবির (২৪), মো. জাহিদ হাসান ভূঁইয়া (২১) ও সৈয়দ রিয়াজ আহমদ (২২)।

সিটিটিসি প্রধান আসাদুজ্জামান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এই তিনজন আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে। সেখানে রাফাতের নাম উল্লেখ করে তারা বলেছে, রাফাত তাদের এই সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত করতে দাওয়াত দিয়েছিল। এই তিনজনসহ প্রায় ১১জন এই রাফতের দাওয়াতে হিজরতের উদ্দেশ্যে ঘর ছেড়েছিল।”

রাফাত জঙ্গি সংগঠনটির সিলেট অঞ্চলের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্বে রয়েছেন বলেও দাবি করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

তিনি আরও বলেন, রাফাতের বিরুদ্ধে আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) এবং রোহিঙ্গা সলিডারিটি অরগানাইজেশনের (আরএসও) যোগাযোগের তথ্য পাওয়া গেছে।

আরও তথ্য পেতে রাফাতকে হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে আবেদন করা হবে বলে জানান আসাদুজ্জামান।

এদিকে জামায়াতের এক বিবৃতিতে চিকিৎসক রাফাত সাদিক সাইফুল্লাহকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “ডা. রাফাত সাদিক সাইফুল্লাহকে ৯ নভেম্বর সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মূলত জামায়াতে ইসলামীর আমির ও জামায়াতে ইসলামীর ভাবমর্যাদা বিনষ্ট করার অংশ হিসেবেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক