গুলশানে এসি বাসের ভাড়া কমছে ৫ টাকা

“যে শর্তে ঢাকা চাকা ও গুলশান চাকা বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছিল, সেগুলো মেনে চলতে হবে,” বলেন মেয়র।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Feb 2024, 04:43 PM
Updated : 22 Feb 2024, 04:43 PM

রাজধানীর গুলশান, বনানী, বারিধারা ও নিকেতন এলাকায় চলাচলকারী শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস ‘ঢাকা চাকা’ ও ‘গুলশান চাকা’র ভাড়া প্রতিটি স্টপেজে ৫ টাকা করে কমছে।

শুক্রবার থেকেই নতুন ভাড়া কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

নগর পরিবহনকে নাগরিকবান্ধব করা নিয়ে বৃহস্পতিবার নগরভবনে আয়োজিত এক সভায় তিনি এ নির্দেশনা দেন। সভায় ঢাকা চাকা, গুলশান চাকা’র প্রতিনিধি, ঢাকা মহানগর পুলিশ, গুলশান সোসাইটি, বনানী সোসাইটি ও বারিধারা সোসাইটির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

২০১৬ সালে গুলশান সোসাইটি এবং নিটল গ্রুপের যৌথ উদ্যোগে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস সেবা ‘ঢাকা চাকা’ চালু হয়। পরে আসে গুলশান চাকা। শুরুতে এই বাসের ভাড়া ছিল ১৫ টাকা।

বর্তমানে বনানী থেকে গুলশান ২ নম্বর পর্যন্ত ২৫ টাকা, নতুন বাজার পর্যন্ত ৩০ টাকা ভাড়া এবং গুলশান ২ নম্বর থেকে পুলিশ প্লাজা পর্যন্ত ৩০ টাকা এবং নাবিস্কো পর্যন্ত ৪০ টাকা ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবারের সভায় মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, “নিয়ম না মেনে চাইলেই ভাড়া বাড়িয়ে দেওয়া যাবে না। নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই ভাড়া সমন্বয় করতে হবে।

“যাত্রীদের কেমন সেবা দেওয়া হচ্ছে সেটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ভাড়া অনুযায়ী যাত্রীদের সেবার মান নিশ্চিত করেই বাস চালাতে হবে।”

মেয়র বলেন, যে শর্তে ঢাকা চাকা ও গুলশান চাকা বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছিল, সেগুলো মেনে চলতে হবে। প্রতিটি গাড়িতে সিসি ক্যামেরা থাকবে, কার্যকরী ও সচল শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র থাকবে।

“বাসের পরিবেশ নোংরা রাখা যাবে না, আরামদায়ক সিট থাকতে হবে। এসব কিছু তদারকি করার জন্য এবং একটি স্মার্ট, আধুনিক, গণবান্ধব, মানসম্মত বাস সার্ভিস নিশ্চিত করতে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে আহ্বায়ক করে একটি কমিটি গঠন করে দেওয়া হবে।”

সভায় বাস পার্কিংয়ের জায়গা নিয়ে সমস্যার কথা জানান পরিবহন কোম্পানির প্রতিনিধিরা।

জবাবে মেয়র আতিক বলেন, “এ বিষয়ে ডিএনসিসি সার্বিক সহযোগিতা করবে। তবে যাত্রীদের সেবার মান নিশ্চিত করার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান করতে হবে৷ টিকেট কাউন্টার থেকে সৃষ্ট বর্জ্য নিয়মিত অপসারণ করে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে হবে।”

ডিএনসিসি সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, সম্পত্তি কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ মাহে আলম, মহাব্যবস্থাপক (পরিবহন) সালমা আক্তার খুকী সভায় উপস্থিত ছিলেন।