এনআইডি সার্ভার সারা দুনিয়াতেই অফ হয়: ইসি সচিব

“এটা (সার্ভার) মূল্যবান একটা সম্পদ। এটা প্রতিনিয়ত আপডেট করা হচ্ছে,” বলেন তিনি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Jan 2024, 04:28 AM
Updated : 23 Jan 2024, 04:28 AM

জাতীয় পরিচয়পত্রের সার্ভারে সারা দুনিয়াতে মাঝেমধ্যে সমস্যা দেখা দেয় বলে দাবি করেছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. জাহাংগীর আলম। মাঝেমধ্যে এই সার্ভার বন্ধ রাখতে হয় জানিয়ে তিনি দাবি করেছেন, এটাও আগেভাগে জানানো সম্ভব নয়।

বুধবার নির্বাচন ভবনে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে একথা জানান তিনি।

এনআইডি মাঝেমধ্যেই বন্ধ থাকায় গুরুত্বপূর্ণ নানা কাজ আটকে যাচ্ছে মানুষের। এ বিষয়ে এক প্রশ্নে সচিব বলেন, “কখনও শাটডাউন হয়ে যায়, কখনও করতে হয়। এটা আগাম জানানো সম্ভব হয় না।

“এটা (সার্ভার) মূল্যবান একটা সম্পদ। এটা প্রতিনিয়ত আপডেট করা হচ্ছে। এটা গতানুগতিক কাজ। আর একদিন, দুদিনের জন্য সার্ভার অফ সারা দুনিয়ায় হয়।”

সাইবার হামলার হুমকি নিয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, “ইলেকট্রনিক ডিভাইস যে সময় শাটডাউন হতে পারে। যেখানে তথ্য ভাণ্ডার থাকে, সেখানেই সাইবার হামলার ঝুঁকি থাকে। ঝুঁকি থাকলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার সবার থাকে সুরক্ষার জন্য।"

অন্য এক প্রশ্নে সচিব জানান, সংসদে বিল পাস হলেও এনআইডি কার্যক্রম এখনই নির্বাচন কমিশন থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, “যতদিন তাদের অফিস, লোকবলসহ অন্যান্য প্রস্তুতি সম্পন্ন না হবে, ততদিন ইসির অধীনেই থাকবে।

“জাতীয় পরিচয় নিবন্ধনের নতুন আইনের দেওয়া আছে, সরকার যখন গেজেট প্রজ্ঞাপর দ্বারা এই কার্যকর করার তারিখ নির্ধারণ করবে তখন কার্যকর হবে। যতক্ষণ আইন কার্যকর হওয়ার তারিখ নির্ধারণ না করবে, ততক্ষণ পর্যন্ত এনআইডি কার্যক্রম যেভাবে আছে সেভাবেই থাকবে।”

অন্য এক প্রশ্নে সচিব জানান, এনআইডি কার্যক্রম মন্ত্রণালয়ে গেলেও ভোটার তালিকা করার বিষয়টি নির্বাচন কমিশনেই থাকবে। তিনি বলেন, “দুটো সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয়। ভোটার হাল নাগাদ নির্বাচন কমিশনই করবে। রাষ্ট্রই ইসিকে এনআইডির দায়িত্ব দিয়েছিল। আবার আইন করে নিয়ে যাচ্ছে।”

সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির বিষয়ে জাহাংগীর আলম বলেন, “ভোটের প্রস্তুতি রোডম্যাপ অনুযায়ী এগিয়ে নিচ্ছি। আমরা পিছিয়ে নেই। প্রশিক্ষক তৈরির প্রশিক্ষণ চলছে। গত ২ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে। তারা ১০ লাখ ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেবে।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)