ট্রলারে আগুনে দগ্ধ আরও ৩ জন চলে গেলেন

গত শুক্রবার ফিশারিঘাটে নোঙর করা মাছ ধরার একটি ট্রলারে বিস্ফোরণে দগ্ধ হয় ১০ জন।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Feb 2024, 05:44 AM
Updated : 13 Feb 2024, 05:44 AM

ঘাটে নোঙর করা মাছ ধরার ট্রলারে বিস্ফোরণের পর আগুনে দগ্ধ হওয়ার ঘটনায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। কক্সবাজার ফিশারিঘাটের এ দুর্ঘটনায় এ নিয়ে পাচঁজন মারা গেলেন। সবশেষ তিনজন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার দিনের বিভিন্ন সময় মারা যান।

শাহীন (৩৫), রহিম উল্ল্যাহ (৩৮) ও আরমান (২২) নামের এ তিনজন হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি ছিলেন। এদের মধ্যে শাহীনের ৬০ শতাংশ, রহিম উল্ল্যাহের ৬৫ শতাংশ ও আরমানের শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শামীম আহসান জানান, ওই ঘটনায় দগ্ধ আরও চারজন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত শুক্রবার ফিশারিঘাটে নোঙর করা মাছ ধরার একটি ট্রলারে বিস্ফোরণে দগ্ধ হয় ১০ জন। তাদের সেদিন চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। ওইদিন উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে আইয়ুব আলী নামে একজনের মৃত্যু হয়। এরপর গত রোববার রাতে চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ওসমান গণি নামে আরেকজন।

ওই ঘটনায় দগ্ধ দিল মোহাম্মদ নামে আরেকজনের শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে চমেকে আছেন শফিকুল ইসলাম (২৬), রফিকুল ইসলাম (২২), মনির আহমেদ (২৪) ও রহিম উল্লাহ (৩০)। 

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)