হাতিরপুলে আলুর কেজি ৬০ টাকা!

এবার শীতে আলু উঠার পর মার্চ-এপ্রিলেও তা বিক্রি হয়েছে ১৩ থেকে ১৮ টাকা দরে; কয়েক মাসের মধ্যেই তা তিন গুণ হয়ে গেছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2024, 03:32 AM
Updated : 11 Feb 2024, 03:32 AM

এক বছর আগে বছরের এই সময়টায় আলুর দাম ছিল ২৪ থেকে ৩০ টাকা কেজি। সেটি বাড়তে বাড়তে এখন ঠেকেছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকায়। তবে বাজারদরের দিক দিয়ে বরাবর আলোচনায় থাকা হাতিরপুলের বিক্রেতারা দাম চাইছেন ৬০ টাকা পর্যন্ত।

কারওয়ানবাজার থেকে কিনে নিয়ে কিলোমিটার খানেক দূরের এই বাজারে কাঁচামালের দাম সব সময় বেশিই দেখা যায়।

শুক্রবার বিকেলে কারওয়ান বাজারে সাদা আলুর খুচরা দাম ছিল ৪৫ টাকা, লালচে আলুর দাম দেখা যায় ৫০ টাকা কেজি।

হাতিরপুল বাজারের কয়েকজন বিক্রেতা সাদা আলুর দাম চাইলেন ৫৫ টাকা, লাল আলুর ৬০ টাকা পর্যন্ত।

বিক্রেতা লিমন হাসান বলেন, “আমরা কারওয়ান বাজার থেকে আলু কিনেই আনি ৪০-৫০ টাকায়। তাইলে এই বাজারে তো ৫-১০ টাকা বেশি হবেই।"

নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে হা হুতাশ করা মানুষের মধ্যে আলুর এই উচ্চমূল্য বিস্ময় তৈরি করেছে। কখনও দেশে পণ্যটির দাম এত ছিল, সেই অভিজ্ঞতা কারও হয়নি।

এবার শীতে আলু উঠার পর মার্চ-এপ্রিলেও তা বিক্রি হয়েছে ১৩ থেকে ১৮ টাকা দরে। কয়েক মাসের মধ্যেই তা তিন গুণ হয়ে গেছে।

ভারত রপ্তানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করার পর দেশি পেঁয়াজ লাফ দিয়ে শতকের কাছাকাছি পৌঁছে পরে কারওয়ানবাজারে স্থির হয়েছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা। ভারতীয় পেঁয়াজ মিলছে ৬০ থেকে ৬৫ তে। হাতিপুল বাজারে রান্নার এই উপকরণের দামও আরও ১০ টাকা বেশি।

শুক্রবার সবজির দাম আগের সপ্তাহের চেয়ে হেরফের দেখা যায়নি খুব একটা। কারওয়ানবাজারে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজিতে পাওয়া যাচ্ছে বেশিরভাগ সবজি। কাঁচা পেঁপের দাম আরও কম। তবে হাতিরপুলে দাম কেজিপ্রতি ২০ টাকা বা তার চেয়ে বেশি।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)