টিপু হত্যা: বাইক চালক শামীমসহ গ্রেপ্তার ৫

এ হত্যাকাণ্ডে মোট ২৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 August 2022, 12:44 PM
Updated : 16 August 2022, 12:44 PM

মতিঝিলের সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপু ও কলেজ ছাত্রী সামিয়া আফনান প্রীতি হত্যা মামলায় আরও পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, প্রথমে সোমবার রাতে ‘বেনাপোল দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময়’ শামীম হোসাইন ওরফে মোল্লা শামীমকে (৩৫) গ্রেপ্তার করা হয়।

তারপর শামীমের দেওয়া তথ্যে তৌফিক হাসান বাবু (৩৪), সুমন হোসেন (৩৫), এহতেশাম উদ্দিন চৌধুরী অপু (৩৭) ও শরিফুল ইসলাম হৃদয়কে (২৮) গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে গোয়েন্দা কর্মকর্তা হারুন বলেন, নতুন পাঁচজন নিয়ে এ হত্যাকাণ্ডে এখন পর্যন্ত মোট ২৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হল।

তিনি বলেন, “যে মোটরসাইকেলে করে গিয়ে খুনিরা টিপুকে গুলি করে পালিয়ে গিয়েছিল, গ্রেপ্তার শামিম সেই মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন।এছাড়া হৃদয়ের কাছ থেকে ওই হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দুটি পিস্তল এবং বাবুর কাছ থেকে মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করা হয়েছে।“

টিপু হত্যায় কে কীভাবে জড়িত ছিলেন, সে কথাও সংবাদ সম্মেলেনে তুলে ধরেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা হারুন অর রশীদ।

তিনি বলেন, “আলোচিত ওই হত্যাকাণ্ডের ছক আঁকেন মুসা, যাকে গত ১২ মে ইন্টাপোল ওমানে গ্রেপ্তার করে। আর মুসা এই কাজে নির্দেশনা পান বিদেশে পালিয়ে থাকা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান ও মানিকের কাছ থেকে।

“এ ছাড়া টিপুকে যে গুলি করেছিল, সেই আকাশকে আগেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে, এবং আকাশই স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছে, শামীম বাইক চালাচ্ছিল, হত্যা পরিকল্পনার বিষয়ে সে সব কিছুই জানে।“

এক প্রশ্নের উত্তরে হারুন বলেন, ইন্টারপোলের মাধ্যমে জিসান ও মানিককেও ফিরিয়ে আনার চেষ্টা হবে, তবে ওই দুই ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ কোন দেশে লুকিয়ে আছে, পুলিশের কাছে সে বিষয়ে নিশ্চিত তথ্য নেই।

কয়েক দফা পিছিয়ে আগামী ৩১ অগাস্ট এ মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন জমার তারিখ রেখেছে আদালত। সেদিন অভিযোগপত্র জমা পড়বে কি না জানতে চাইলে এই ডিবি কর্মকর্তা বলেন, “তদন্ত চলছে, তারপর দেব।“

গত ২৪ মার্চ রাত ১০টার দিকে রাজধানীর শাজাহানপুরে দুর্বৃত্তদের এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহত হন মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপু।

ওই সময় টিপুর গাড়ির পাশে রিকশায় থাকা কলেজছাত্রী সামিয়া আফনান প্রীতি গুলিতে নিহত হন। টিপুর গাড়িচালক মুন্নাও গুলিবিদ্ধ হন। এ ঘটনায় টিপুর স্ত্রী ফারজানা ইসলাম ডলি মামলা দায়ের করেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক