প্রত্যাশা পূরণ ও দেশের কল্যাণে এমপিদের কাজ করার তাগিদ স্পিকারের

স্পিকার শিরীন শারমিন বলেন, “পাঁচ বছর পূর্ণ হলে কৃতকর্ম নিয়েই জনগণের কাছেই আবার ফিরে যেতে হবে।“

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Jan 2024, 10:18 AM
Updated : 28 Jan 2024, 10:18 AM

জনগণ প্রজাতন্ত্রের সকল ক্ষমতার মালিক জানিয়ে দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণ এবং কল্যাণ নিশ্চিতে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, “৭ জানুয়ারির দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমেই সংসদ সদস্যরা কাজ করার সুযোগ পান। পাঁচ বছর পূর্ণ হলে কৃতকর্ম নিয়ে জনগণের কাছেই আবার ফিরে যেতে হবে।”

রোববার সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে দ্বাদশ জাতীয় সংসদে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্পিকার বলেন, “নির্বাহী বিভাগ ও সরকারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা আইনসভার সদস্যদের অন্যতম কাজ।”

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে স্মার্ট সংসদ ও দেশ গড়ে তুলতে সংসদ সদস্যদের একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “জনগণের ভোট ও সমর্থন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচিত হয়েছেন। জাতীয় সংসদের প্রতিটি ব্যাপারে তিনি অত্যন্ত সচেতন ও মনোযোগী। তিনি স্মার্ট ও উন্নত বাংলাদেশ গঠনে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।”

সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু ও চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুস শহীদ অনুষ্ঠানে সংসদীয় কার্যক্রম সম্পর্কে সেশন এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম প্রশ্নোত্তর পর্ব পরিচালনা করেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও নজরুল ইসলাম বাবু এবং সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

দ্বাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন বসছে ৩০ জানুয়ারি। সেদিন বিকাল ৩টায় বসবে প্রথম অধিবেশন।

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় আওয়ামী লীগ। ভোট হওয়া ২৯৯ আসনের মধ্যে ২২২টিতে জয় পায় দলটি।

এছাড়া গত দুই সংসদে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ১১টি, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিকদের মধ্যে জাসদ একটি ও ওয়ার্কার্স পার্টি একটি এবং এক সময় বিএনপির জোটে থাকা কল্যাণ পার্টি একটি আসনে জয় পায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আসন পান স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

যে ৬২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন, তাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগেরই নেতা।