বাইডেনের হাত-পা বাঁধা ভিডিও পোস্ট, সমালোচনার মুখে ট্রাম্প

সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট নভেম্বরের নির্বাচনের আগে দিয়ে ‘প্রতিনিয়তই রাজনৈতিক সহিংসতা উষ্কে দিচ্ছেন’,অভিযোগ প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রচার শিবিরের।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2024, 05:40 PM
Updated : 31 March 2024, 05:40 PM

পিকআপ ট্রাকের পেছনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হাত-পা বাঁধা ছবি লাগানো একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ট্রুথ সোশ্যালে পোস্ট করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। 

এ ভিডিও নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। বাইডেনের নির্বচনী প্রচার শিবির তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছে, ট্রাম্প নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে দিয়ে ‘প্রতিনিয়তই রাজনৈতিক সহিংসতা উষ্কে দিচ্ছেন’।

ট্রাম্প গত শুক্রবার ওই ভিডিও পোস্ট করেন। ক্যাপশন অনুযায়ী, সেটি ধারণ করা হয়েছে আগের দিন বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ডে। সেদিন নিউ ইয়র্কে ট্রাম্প নিহত এক পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, রাস্তা দিয়ে দুটো ট্রাক যাচ্ছে। দুটো ট্রাকই যুক্তরাষ্ট্রের পতাকায় মোড়ানো এবং পুলিশের জন্য সমর্থন প্রকাশ করতে পুলিশের পতাকায় মোড়ানো ছিল।দ্বিতীয় ট্রাকে লেখা ছিল ‘ট্রাম্প ২০২৪’ এবং গাড়িটির পেছনে বাইডেনের হাত-পা বাঁধা ছবি আাঁকা ছিল।

এ ভিডিও’র প্রতিক্রিয়ায় এক বিবৃতিতে বাইডেনের নির্বাচনী প্রচার শিবিরের মুখপাত্র মাইকেল টাইলার বলেন, “ট্রাম্প প্রতিনিয়ত রাজনৈতিক সহিংসতা উসকে দিচ্ছেন। এখন সময় এসেছে জনগণের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নেওয়ার।”

২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গার ঘটনা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, “সেই সব পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছ থেকে জানুন, যারা ৬ জানুয়ারি আমাদের গণতন্ত্র রক্ষা করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছিলেন।”

ওদিকে, ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচার শিবিরের মুখপাত্র স্টেভেন চিউং বলেন, “রাস্তা দিয়ে যাওয়া একটি পিকআপ ট্রাকের পেছনে ছবিটি লাগানো ছিল। ডেমোক্র্যাট এবং দলটির পাগলরা কেবল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে ঘৃণ্য সহিংসতার ডাকই দেয়নি; তারা আসলে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিচার ব্যবস্থাকে অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করছে।” 

আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট জো বাইডেন এবং রিপাবলিকান ডনাল্ড ট্রাম্প দ্বিতীয়বারের মত মুখোমুখি হতে চলেছেন- এমনটিই দেখা যাচ্ছে। বাইডেন দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হলে দেশ বিপর্যয়ে পড়বে- এমনই একটি চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করছেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি একটি নির্বাচনী সমাবেশে গিয়ে ট্রাম্প বলেছিলেন, আমি নির্বাচিত না হলে ‘রক্তগঙ্গা’ বইবে। যদিও এ বক্তব্য দিয়ে তিনি কী বোঝাতে চাইছেন, সেটি পরিষ্কার হয়নি। অভিবাসীদের নিয়েও কটাক্ষ করে তিনি বলেছিলেন, ‘তারা আমাদের দেশের রক্ত বিষাক্ত করছে’।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে চারটি ফৌজদারি মামলা থাকলেও বিভিন্ন জনমত জরিপে ট্রাম্পের সমর্থন বেশি দেখা যাচ্ছে। ২০২৪ সালের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেতে ট্রাম্প চলতি মাসের শুরুর দিকে প্রাথমিক বাছাইয়ে (প্রাইমারি ও ককাস) যথেষ্টসংখ্যক ভোটারের সমর্থন পেয়েছেন।