উত্তর কোরিয়ায় পালিয়ে যাওয়া মার্কিন সেনা কিং এখন টেক্সাসে

যদিও যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী থেকে এখনো তাকে ‘পলাতক’ বলা হয়নি।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Nov 2023, 10:33 AM
Updated : 7 Nov 2023, 10:33 AM

প্রায় দুই মাস আগে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে দৌড়ে সীমান্ত পেরিয়ে উত্তর কোরিয়ায় চলে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের সেনাসদস্য ট্রাভিস কিং বৃহস্পতিবার সকালে টেক্সাসে পৌঁছেছেন। একদিন আগে উত্তর কোরিয়া তাকে বহিষ্কার করে। সেখান থেকে প্রথমে তিনি চীনে যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের হেফাজতে ছিলেন।

পরে মার্কিন সেনাবাহিনীর একটি ফ্লাইটে করে তাকে টেক্সাসে একটি সেনাঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে আগে তার মেডিকেল পরীক্ষা হবে তারপর তিনি পরিবারের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পাবেন। সেনাবাহিনীর থেকে প্রাইভেট কিংয়ের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাজনিত কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে কি না, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

কিং ২০২১ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীতে কাজ করছেন। শত্রু এলাকায় রেকি করার বিষয়ে বিশেষজ্ঞ কিং দক্ষিণ কোরিয়ায় দায়িত্বরত ছিলেন। নিপীড়নের একটি অভিযোগে সেখানে দুই মাস বন্দি থাকার পর গত ১০ জুলাই তিনি ছাড়া পান এবং ১৮ জুলাই উত্তর কোরিয়া পালিয়ে যান। যদিও যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী থেকে এখনো তাকে ‘পলাতক’ বলা হয়নি।

বুধবার কিংকে বহিষ্কার করার খবর জানানোর সঙ্গে সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেএনসিএ-র খবরে বলা হয়েছিল, কিং যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর ভেতর ‘অমানবিক আচরণের শিকার হওয়ার’ এবং ‘বর্ণবাদ’ থাকার অভিযোগ তুলে এর থেকে বাঁচতে উত্তর কোরিয়া পালিয়ে গেছেন বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। কিং মোট ৭১ দিন উত্তর কোরিয়া ছিলেন। পিয়ংইয়ংয়ের হাতে পড়া কোনো আমেরিকান এর আগে কখনও এত দ্রুত ছাড়া পায়নি। উত্তর কোরিয়া কিংকে অবৈধভাবে প্রবেশ করা বিদেশি হিসেবে বিবেচনা করেছিল। সংবাদ সূত্র: রয়টার্স

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)